ঈশ্বরদীতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে ঘিরে এক পক্ষের উদ্যোগে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে সাবেক ভূমিমন্ত্রী প্রয়াত শামসুর রহমান শরীফের বাসভবনের সামনে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রার্থী হিসেবে ঈশ্বরদী পৌরসভার মেয়র ও পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইছাহক আলী মালিথা এবং সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী হিসেবে কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের উপকমিটির সদস্য সাকিবুর রহমান শরীফ কনকের নাম ঘোষণা করা হয়।

আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। আসন্ন এই সম্মেলনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় পর্যায়ে আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষের পাল্টাপাল্টি পুরোনো দ্বন্দ্ব এখন প্রকাশ্যে এসেছে। বৃহস্পতিবার এক পক্ষের সম্মেলন ঘিরেও নানা উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে শহরময়। আইনশৃঙ্খলা শান্তিপূর্ণ রাখতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।

আওয়ামী লীগ নেত্রী ও প্রয়াত ভূমিমন্ত্রীর সহধর্মিণী কামরুন্নাহার শরীফ আনুষ্ঠানিকভাবে প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন। এর আগে বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতা, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগের নেতা, উপজেলা ও পৌর যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতারা সংবাদ সম্মেলনস্থলে সমবেত হন।

সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কামরুন্নাহার শরীফের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কৃষি ও সমবায়বিষয়ক উপকমিটির সদস্য রফিকুল ইসলাম লিটন, তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপকমিটির সদস্য সাকিবুর রহমান শরীফ কনক, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মকলেছুর রহমান মিন্টু, সহসভাপতি ফরিদুল আলম, সাংগঠনিক সম্পাদক মীর জহুরুল হক পুনো, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পৌরসভার মেয়র ইছাহক আলী মালিথা।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন মুলাডুলি ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম মালিথা, ঈশ্বরদী সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি আসাদুর রহমান বিরু, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ইমতিয়াজ চৌধুরী মিলন, পৌর যুবলীগের সভাপতি আলাউদ্দিন বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম লিটন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাকিবুল হাসান রনি, সাধারণ সম্পাদক সুমন দাস প্রমুখ।

এর আগে গত শুক্রবার ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগের অপর পক্ষ স্থানীয় এমপি নুরুজ্জামান বিশ্বাসকে পুরোনো মোটরস্ট্যান্ডের মাহবুব আহমেদ খান স্মৃতিমঞ্চে সংবর্ধনা দেওয়া হয়। ওই অনুষ্ঠানে এমপি নুরুজ্জামান বিশ্বাস উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রার্থী হিসেবে তার চাচাতো ভাই নায়েব আলী বিশ্বাসের নাম প্রস্তাব করেন। এতে সমালোচনার মুখে পড়েন এমপি। এর ছয় দিন পর অপর পক্ষ সংবাদ সম্মেলন করে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দু'জনের নাম ঘোষণা করলেন।

আগামী ২৯ সেপ্টেম্বর পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। আসন্ন এই সম্মেলনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় পর্যায়ে আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষের পাল্টাপাল্টি পুরোনো দ্বন্দ্ব এখন প্রকাশ্যে এসেছে। বৃহস্পতিবার এক পক্ষের সম্মেলন ঘিরেও নানা উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে শহরময়। আইনশৃঙ্খলা শান্তিপূর্ণ রাখতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।