স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে এ সপ্তাহেই স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানানো হলেও এখনো এ বিষয়ে অবগত নয় মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। 

মঙ্গলবারও এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম জানিয়েছেন, চলতি সপ্তাহের মধ্যেই স্কুল শিক্ষার্থীদের টিকাদান শুরু হবে। নিজ নিজ স্কুলের মাধ্যমেই শিক্ষার্থীরা এই টিকা কার্যক্রমে অংশ নিতে পারবে।

তবে এ বিষয় এখনো লিখিত কোনো নির্দেশনা পায়নি বলে জানিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মাউশির পরিচালক (মাধ্যমিক) অধ্যাপক বেলাল হোসাইন। তিনি বলেন, 'আমরা বিষয়টি শুনেছি। তবে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে লিখিত কোনো কিছু এখনো আমাদের জানায়নি। লিখিতভাবে জানালে আমরা করণীয় বিষয়ে নেবো। আশা করছি মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হবে।'

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এ বি এম খুরশীদ আলম মঙ্গলবার বলেন, 'সারাদেশে ২১টি জেলায় একযোগে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশু-কিশোরদের করোনা টিকা প্রয়োগ শুরু হবে।'

এদিকে শিক্ষার্থীদের সুস্থ রাখতে ফ্রি স্বাস্থ পরীক্ষা করানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। আগামী ২৩ থেকে ২৯ অক্টোবর পর্যন্ত এ কার্যক্রম চালানো হবে। তার সঙ্গে ৩০ অক্টোবর থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত 'জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ' পালন করা হবে।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক বলেন, 'সক্ষমতা অনুযায়ী সারাদেশের জেলা ও সিটি করপোরেশন পর্যায়ে ২১টি কেন্দ্র নির্ধারণ করা হয়েছে। এসব কেন্দ্রে স্কুল শিক্ষার্থীদের ফাইজারের টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। আশা করছি, চলতি সপ্তাহে আমরা টিকাদান শুরু করতে পারবো।' 

ডা. খুরশীদ আলম আরও বলেন, 'স্কুল শিক্ষার্থীদের তালিকা সরবরাহ করবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। আমরা সুরক্ষা প্ল্যাটফর্মে তাদের বিস্তারিত তথ্য দিয়ে দেবো।'