ছয়বার সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিল নেপাল। সপ্তমবারে এসে ফাইনালের স্বপ্নপূরণ হয়েছে হিমালয়ের দেশটির। রাউন্ড রবিন লিগভিত্তিক এবারের সাফে বাংলাদেশের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করে প্রথমবার ফাইনালে ওঠা অঞ্জন বিষ্টরা শিরোপার স্বপ্ন দেখছে। 

আজ মালের ন্যাশনাল ফুটবল স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় শুরু হতে যাওয়া ফাইনালে নেপালের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ এশিয়ান ফুটবলের পাওয়ার হাউস ভারত। এখন পর্যন্ত এই প্রতিযোগিতায় সর্বোচ্চ সাতবার ট্রফি জেতা সুনীল ছেত্রির দল শনিবারের ফাইনালের ফেভারিট। নেপালকে হারিয়ে অষ্টমবারের মতো ট্রফি জিততে মরিয়া ইগর স্টিমাচের দল।

র‍্যাংকিং এবং পরিসংখ্যান- সব বিভাগে নেপালের চেয়ে যোজন যোজন এগিয়ে ভারত। দু'দলের মধ্যকার ২২ বারের লড়াইয়ে ভারত ১৫ এবং নেপাল জিতেছে ২ ম্যাচে। বাকি পাঁচটি হয়েছে অমীমাংসিত। নেপালের সর্বশেষ জয়টি আবার সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে। ২০১৩ সালের ৫ সেপ্টেম্বর কাঠমান্ডুর দশরথ স্টেডিয়ামে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে ভারতকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল নেপাল। এরপর সব ধরনের প্রতিযোগিতা মিলিয়ে আরও আটবার মুখোমুখি হলেও ভারতের সঙ্গে জিততে পারেনি হিমালয়ের দেশটি। মালেতে এবারের সাফে রক্ষণাত্মক খেলেও ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরেছিল হিমালয়ের দলটি। 

তবে ফাইনালে স্বপ্নপূরণের ম্যাচে এবার ভারতকে চ্যালেঞ্জ জানাচ্ছে কিরনের দল। তবে পূর্ণ শক্তির দল নিয়ে সাফ খেলতে মালদ্বীপে যাওয়া ভারতের জন্য এবারের আসরটি অন্যরকম চ্যালেঞ্জের। ২০১৮ সালে ঢাকায় অনুষ্ঠিত সর্বশেষ আসরে যুব দল নিয়ে খেলা ভারত ফাইনালে মালদ্বীপের কাছে হেরেছিল। সেই সময় সমালোচনা না হলেও এবার হারলে হয়তো চাকরি চলে যেতে পারে কোচ স্টিমাচের। তবে আজকের ফাইনালে সবার দৃষ্টি থাকবে ছেত্রির দিকে। ট্রফি জিতে শেষ সাফটা স্মরণীয় করে রাখতে চান ভারত অধিনায়ক।