বাংলাদেশে হিন্দু নির্যাতনের ঘটনায় কলকাতার বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনার তৌফিক হাসানের সঙ্গে দেখা করেছেন বিরোধী দলনেতা বিজেপির বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। সোমবার সন্ধ্যায় তিনি দেখা করেন। এসময় তার সঙ্গে বিজেপির আরও কয়েক বিধায়কও ছিলেন।

ডেপুটি হাইকমিশন থেকে বেরিয়ে শুভেন্দু বলেন, আমরা এ পার বাংলার মানুষের উদ্বেগের কথা জানালাম ডেপুটি হাইকমিশনারকে। আজ আমরা ঢাকেশ্বরী মন্দিরে পূজা দিয়ে এখানে এসে ডেপুটি হাইকমিশনারকে জানালাম, ওপার বাংলায় সংখ্যালঘু হিন্দুদের ওপর নির্যাতন অবিলম্বে বন্ধ হোক। তিনি যেন আমাদের উদ্বেগের কথা গণভবনে জানান।

শুভেন্দু বলেন, বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দুরা অত্যন্ত আতঙ্কের মধ্যে রয়েছে। হিন্দুরা আক্রান্ত। মানবাধিকার লঙ্ঘিত হয়েছে। ইসকনের একজন ভক্তসহ বেশ কয়েকজন মারা গেছেন। পূজামণ্ডপ ভাঙা হয়েছে, মন্দির তছনছ করা হয়েছে। আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে মানুষজন।

শুভেন্দু আরও বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সপ্তমীর দিন বলেছিলেন, কড়া হাতে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হবে। কিন্তু এরপরও অত্যাচার বন্ধ হয়নি। রোববারই  রংপুরে মৎস্যজীবীদের দুটি গ্রাম পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। আসলে প্রধানমন্ত্রীর কথা ওখানকার মৌলবাদীরা শুনছে না।

বিজেপির এ বিধায়ক বলেন, পররাষ্ট্রনীতিকে সম্মান জানিয়ে বলছি, আমরা চাই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী আরও কড়া হোন।