পাকিস্তানের জলসীমায় অনুপ্রবেশের সময় একটি ভারতীয় সাবমেরিন শনাক্ত করে তার গতিপথ আটকে দিয়েছে বলে জানিয়েছে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। শনিবার এই ঘটনা ঘটলেও পাকিস্তান সেনাবাহিনীর দ্য ইন্টার সার্ভিস পাবলিক রিলেশন (আইএসপিআর) এই্ সংক্রান্ত খবরটি মঙ্গলবার এক বিবৃতি দিয়ে জানায়। বিবৃতির সঙ্গে সাবমেরিন শনাক্ত সংক্রান্ত একটি ভিডিও যুক্ত করে দিয়েছে আইএসপিআর।তবে এই ব্যাপারে ভারতের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত কোনো প্রতিক্রিয়া জানানো হয়নি।   

আইএসপিআরের বিবৃতিতে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর অভিযোগ, ভারতীয় সাবমেরিনের পাকিস্তান জলসীমায় অনুপ্রবেশের চেষ্টাকে পেশাগত দক্ষতা ও সতর্কতার সঙ্গে পাকিস্তান নৌবাহিনী আটকে দিয়েছে। পাকিস্তান নৌবাহিনী তাদের নিয়মিত নিরাপত্তা প্রহরার সময় কঠোরভাবে নিজেদের জলসীমায় নজরদারি রাখছিল। খবর ডনের।  

আইএসপিআর আরও জানায়, ১৬ অক্টোবরের ঘটনাটি পাকিস্তান নৌবাহিনীর টহল বিমানের তৃতীয় কোনো ভারতীয় সাবমেরিন শনাক্ত ও গথিপথ আটকে দেওয়ার ঘটনা। সাম্প্রতিক ঘটনা ভারতের প্রতিশ্রুতির সঙ্গে  দুঃখজনক প্রতারণার এবং পাকিস্তান নৌবাহিনীর মাতৃভূমির সমুদ্রসীমা রক্ষার প্রতিশ্রুতির প্রতিফলন।

২০১৯ সালের মার্চে সর্বশেষ এমন ঘটনার অভিযোগ করেছিল পাকিস্তান নৌবাহিনীর মুখপাত্র।এক বিবৃতিতে তখন বলা হয়েছিল, ‘ভারতীয় একটি সাবমেরিন পাকিস্তানের জলসীমায় অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেছিল। পাকিস্তানি নৌবাহিন সেটি শনাক্ত এবং গতিপথ আটকে দিয়েছে। নৌবাহিনী বিশেষায়িত দক্ষতা ব্যবহার করে ভারতীয় সাবমেরিন সফলভাবে পাকিস্তানের জলসীমায় অনুপ্রবেশের চেষ্টা আটকে দিয়েছে।’