অবশেষে পাঁচদিনের মাথায় সিদ্ধান্ত হয়েছে অর্ধডুবন্ত আমানত শাহ ফেরি উদ্ধার করা হবে বেসরকারি একটি কোম্পানি দিয়ে। চট্রগ্রামের কোম্পানি জেনুইন এন্টারপ্রাইজ ফেরিটি উদ্ধারে কাজ করবে। বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) যুগ্ম-পরিচালক (উদ্ধার) মো. ফজলুল রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।

জেনুইন এন্টারপ্রাইজের পৃথক ছয়টি উইনস বার্জ ফেরিটি উদ্ধারে নামবে। সোমবার থেকে অর্ধডুবন্ত আমানত শাহ উদ্ধারের মূল কাজ শুরু হবে। ইতোমধ্যে ওই কোম্পানিকে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। রোববার দুপুরে নৌ মন্ত্রণালয় থেকে এ ধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। নৌ মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনক্রমে ফেরি উদ্ধারের যাবতীয় ব্যয় বহন করবে বিআইডব্লিউটিএ।

নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, ফেরিটি উদ্ধারে জেনুইন এন্টারপ্রাইজের মালিক বদিউল আলমের সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে কোম্পানিটি সোমবার থেকে পাটুরিয়া ৫নং ফেরি ঘাটের কাছে অর্ধডুবন্ত আমানত শাহ উদ্ধারের মূল কাজ শুরু করবে।

জেনুইন এন্টারপ্রাইজের সিইও বদিউল আলম জানান, রোববার দুপুরে নৌ মন্ত্রণালয়ে ফেরিটি উদ্ধারে একাধিক সভা হয়েছে। ওই সভায় ফেরিটি উদ্ধারের জন্য তার প্রতিষ্ঠানকে অনুরোধ করা হয়। যার উদ্ধার কাজের ব্যয় ধরা হয়েছে দুই কোটি টাকার মতো। সোমবার ফেরি উদ্ধারের জন্য চট্টগ্রাম থেকে একটি ডুবুরি টিম আসবে এবং খোঁজখবর নিয়ে দেখবে। তাদের তথ্যের ওপর নির্ভর করে উদ্ধারের প্রস্তুতি নেওয়া হবে। চেষ্টা থাকবে ফেরিটিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করা। এ ব্যাপারে লিখিত না হলেও মৌখিক চুক্তি হয়েছে।

বিআইব্লিউটিএ-এর যুগ্ম পরিচালক ফজলুল রহমান জানান, পানিতে তলিয়ে থাকা ১৪টি ট্রাক ও চারটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। এ কারণে শনিবার রাতে ফেরি ছাড়া যানবাহন উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত করা হয়।

তিনি আরও জানান, আংশিক ডুবে যাওয়া আমানত শাহ ফেরির স্বাভাবিক সময়ের ওজন ৬০০ টন। পানিতে ডুবে যাওয়ায় এর ওজন হয়েছে আরও অনেক। অপরদিকে পাটুরিয়া ঘাটে অবস্থান করা উদ্ধারকারী জাহাজ হামজা ও রুস্তমের সক্ষমতা ১২০ টনের মতো। কিন্তু বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের উদ্ধারকারী জাহাজের সক্ষমতা এক হাজার টনের উপরে। তাই ডুবন্ত ফেরিটি উদ্ধার করতে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তি করা হয়েছে।

গত বুধবার সকালে পাটুরিয়ার ৫ নম্বর ফেরিঘাটে আমানত শাহ ফেরিটি কাত হয়ে আংশিক ডুবে যায়। এতে ১৪টি ট্রাক কাভার্ডভ্যান ও চারটি মোটরসাইকেল ছিল। দুর্ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।