পাঠাও, উবারসহ অ্যাপভিত্তিক রাইডগুলো থেকে কোম্পানি শেয়ার ২৫-৩০ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশে নামিয়ে আনার দাবি জানিয়েছেন চালকরা। 

অ্যাপভিত্তিক রাইডগুলোর চালকরা দাবি করছেন, সারা দিনের আয় থেকে ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ অ্যাপভিত্তিক প্রতিষ্ঠানগুলোকেই দিয়ে দিলে তারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হন। 

শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে রাইড শেয়ার অ্যান্ড সার্ভিস ডেলিভারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে তারা এই দাবি জানান। 

এই সমাবেশে তারা চার দফা দাবি উত্থাপন করেন। এই দাবিগুলো হল- 

#ট্রাফিক পুলিশের হয়রানি বন্ধ করা 

#কোম্পানির কমিশন ১০ পারসেন্ট নির্ধারন কর

#কোম্পানির খরচে জীবন ও স্বাস্থ্যবীমার ব্যবস্থা কর। 

#অ্যাপভিত্তিক কাজের কর্মীদের শ্রম আইনে অন্তর্ভুক্তকরণ।

রাইড শেয়ার অ্যান্ড সার্ভিস ডেলিভারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের সদস্য সচিব রিয়াজ মাহমুদ সমকালকে বলেন, ‘প্রধান সমস্যা হল দুটি। একটি হল কোম্পানি শেয়ার। কোম্পানি শেয়ার কামনোর দাবি আমরা অনেকদিন থেকেই করছি। কিন্তু এটা নিয়ে কোনো আলোচনাই হয় না। রাইড শেয়ার করতে অবশ্যই যেন অ্যাপ ব্যবহার করেন যাত্রী-চালকরা, এমন নির্দেশনা এসেছে সরকারের পক্ষ থেকে। আমাদের অ্যাপে যেতে সমস্যা নাই। কিন্তু এই কোম্পানি শেয়ার কমাতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা যারা রাইড শেয়ার করছি, তারা বিআরটিএর আইনকানুন মেনে সব কাগজপত্র ঠিকঠাক রাখি। কিন্তু ট্রাফিক পুলিশ মোড়ে মোড়ে আমাদের গাড়ি থামায়। অযথাই মামলা দিচ্ছে। আমরা এ হয়রানি বন্ধ করার দাবি জানাই।’

স্বাস্থ্যবীমার দাবির সপক্ষে তিনি বলেন, ‘আমাদের অনেকেই গাড়ি চালাতে গিয়ে নানা দুর্ঘটনার সম্মুখীন হচ্ছেন। আমাদের দাবি হচ্ছে, আমাদের রাইড শেয়ারিংকে পেশা হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে আমাদের জন্য স্বাস্থ্যবীমা নিশ্চিত করতে হবে।’

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন রাইড শেয়ার অ্যান্ড সার্ভিস ডেলিভারি ওয়ার্কার্স ইউনিয়নের আহ্বায়ক মো.রফিক, যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান, দাপ্তরিক সচিব হাফিজ মোল্লা।