বাংলাদেশ গণিত সমিতি ও এএফ মুজিবুর রহমান ফাউন্ডেশনের যৌথ উদ্যোগে এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের (খুবি) গণিত ডিসিপ্লিনের আয়োজনে ১২তম জাতীয় স্নাতক গণিত অলিম্পিয়াড-২০২১ শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

এদিন সকালে কর্মসূচির শুরুতে সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের সঙ্গে জাতীয় পতাকা, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় ও গণিত অলিম্পিয়াডের পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে বেলুন ও ফেস্টুন উড়িয়ে এবং পায়রা অবমুক্ত করে খুলনা অঞ্চলের এ অলিম্পিয়াডের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি উপাচার্য অধ্যাপক মাহমুদ হোসেন।

এ সময় তিনি বলেন, যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলতে এগিয়ে যেতে হবে। আর যদি গণিত না এগোয় তাহলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এগোবে না। কেননা গণিতকে কেন্দ্র করেই বিজ্ঞানের এত বিস্তৃতি। তিনি বলেন, গণিত অলিম্পিয়াড কোনো প্রতিযোগিতা নয়, এটি একটি উৎসব। করোনা মহামারি কাটিয়ে এ বছর এই অলিম্পিয়াড হচ্ছে। আগামীতে অংশগ্রহণকারী আরও বাড়বে বলে তিনি আশা ব্যক্ত করেন।

গণিত ডিসিপ্লিনের প্রধান অধ্যাপক মুন্নুজাহান আরার সভাপতিত্বে উদ্বোধন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান, প্রকৌশল ও প্রযুক্তিবিদ্যা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. আফরোজা পারভীন, ছাত্র বিষয়ক পরিচালক অধ্যাপক মো. শরীফ হাসান লিমন এবং বাংলাদেশ গণিত সমিতির পক্ষে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কল্যাণ কুমার দে। এ সময় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. মোশতাক আহমদ এবং সংশ্নিষ্ট ডিসিপ্লিনের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন।

এই অলিম্পিয়াডে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি এবং বিএল কলেজের ৭২ জন শিক্ষার্থী অংশ নেন। প্রতিযোগিতা থেকে ১০ জনকে দ্বিতীয় পর্বের জন্য নির্বাচন করা হয়।