প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ব্যবসা-বাণিজ্য বৃদ্ধিতে বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধির প্রয়োজীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন। তিনি বলেছেন, দু’দেশের মধ্যে যোগাযোগ বৃদ্ধি করতে পারলে দ্বিপক্ষীয় ব্যবসা বাণিজ্য আরও বৃদ্ধি পাবে।

বুধবার প্রধানমন্ত্রী তার সরকারি বাসভবন গণভবনে ঢাকায় সফররত মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফয়সাল নাসিমের সঙ্গে বৈঠকে এ কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। খবর বাসসের

বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ মানবসেবা ও স্বাস্থ্য সেবায় মালদ্বীপকে কারিগরি সহায়তা দিতে পারে। তিনি বলেন, আমরা আমাদের স্বাস্থ্য খাতের অভিজ্ঞতা মালদ্বীপের সঙ্গে শেয়ার করতে পারি। বাংলাদেশ প্রাথমিক স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে কমিউনিটি ক্লিনিক প্রতিষ্ঠা করেছে। বাংলাদেশ এ ক্ষেত্রে মালদ্বীপকে সহায়তা করতে পারে।

প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের বঙ্গবন্ধু-১ স্যাটেলাইট সেবা ব্যবহার করার পরামর্শ দেন মালদ্বীপকে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে মালদ্বীপকে একটি জলবায়ু ঝুঁকিপূর্ণ দেশ হিসেবে তুলে ধরার কথা তিনি মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্টকে বলেন এবং মালদ্বীপের জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন।

মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, তার দেশ যখনই কোনো সংকটের সম্মুখীন হয়, তখনই বাংলাদেশের সমর্থন পায়। ফয়সাল নাসিম বলেন, তিনি বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন এবং বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর পরিদর্শন করেছেন। এটি ছিল একটি খুবই হৃদয়স্পর্শী বিষয়। তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহাম্মদ সোলিহর শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন। বাংলাদেশে মেডিকেল কলেজে মালদ্বীপের বিপুল সংখ্যক শিক্ষার্থীর লেখাপড়া করার কথা উল্লেখ করে এ বিষয়ে তিনি বাংলাদেশের সহযোগিতা কামনা করেন। 

মালদ্বীপের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফয়সাল নাসিম তার ঢাকা সফরকে খুবই ফলপ্রসূ উল্লেখ করেন। তিনি স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এবং শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনির সঙ্গে বৈঠক করেন। এ সকল বৈঠকে স্বাস্থ্য ও শিক্ষায় দু’দেশের মধ্যে সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা হয়। বৈঠক তিনি খুবই ইতিবাচক বলে উল্লেখ করেন।

বৈঠকে অন্যদের মধ্যে মালদ্বীপের স্বাস্থ্যমন্ত্রী আহমেদ নাসিম, শিক্ষামন্ত্রী ড. ইব্রাহিম হাসান, ঢাকায় নিযুক্ত মালদ্বীপের হাইকমিশনার শিরুজিমাথ সামীর এবং প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. আহমেদ কায়কাউস উপস্থিত ছিলেন।