আওয়ামী লীগ থেকে সদ্য বহিষ্কৃত গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলমসহ চারজনের বিরুদ্ধে জমি সংক্রান্ত এক মামলায় আদালত অবমাননার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। 

অপর তিনজন হলেন- জয়দেবপুরের পাইনশাল গ্রামের আলফাজ, পশ্চিম ডগরী গ্রামের হারুনুর রশিদ ওরফে ঠাণ্ডু এবং বি কে বাড়ী গ্রামের ফজলুল হক।

রুলে মেয়র জাহাঙ্গীরসহ চারজনের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার দায়ে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে না- জানতে চাওয়া হয়েছে। এক সপ্তাহের মধ্যে সংশ্লিষ্টদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। 

বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খোন্দকার দিলীরুজ্জামান সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ বুধবার এ আদেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আবুল কালাম আজাদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাশগুপ্ত।

মামলার বিবরণে জানা যায়, চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে জমি সংক্রান্ত এক মামলায় মেয়র জাহাঙ্গীর আলমসহ চারজনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আদালত অবমাননার আবেদন করা হয়। রিট আবেদনটি করেন স্থানীয় বাসিন্দা আশরাফ উদ্দিন আহমেদ।

গত ১৯ নভেম্বর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে কটাক্ষ করে বক্তব্য দেওয়ার ঘটনায় আওয়ামী লীগ থেকে মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে বহিস্কার করা হয়।

রাজবাড়ীতে সংবাদ সম্মেলনে শাস্তি দাবি

রাজবাড়ী প্রতিনিধি জানান, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটূক্তি করায় গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের শাস্তি দাবিতে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটি নামক সংগঠনের পক্ষ থেকে এ সংবাদ সম্মেলন করা হয়। জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন সংগঠনটির পৌর শাখার সভাপতি শশী আক্তার।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে কটূক্তি করায় মঙ্গলবার রাজবাড়ীর আদালতে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। যার জন্ম না হলে বাংলাদেশ স্বাধীন হতো না, তাকে নিয়ে কোনো কটূক্তি সহ্য করব না। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের শাস্তি দাবি করছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন রাজবাড়ী জেলা পরিষদ সদস্য ও জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কোহিনুর বেগম, সদর উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রহিমা বেগম, মানবিক বাংলাদেশ সোসাইটির শফিকুল ইসলাম প্রমুখ।