সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে করা মামলায় আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন বিএনপিদলীয় সাবেক মন্ত্রী ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা। 

বুধবার ঢাকার মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশের আদালতে মামলাটি চার্জশিট গ্রহণের জন্য ধার্য ছিল। এদিন আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন নাজমুল হুদা। তিনি নিজেই জামিন শুনানি করেন। দুদকের পক্ষে আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তার জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিকে, দুদকের দেওয়া অভিযোগপত্র গ্রহণ করেন আদালত। চার্জ শুনানির জন্য আগামী ১৩ ডিসেম্বর ধার্য করে মামলাটি ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯-এ বদলির আদেশ দেন বিচারক। গত অক্টোবরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা দুদক পরিচালক বেনজীর আহমেদ এ মামলায় চার্জশিট দাখিল করেন। 

২০২০ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়-১-এ ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন দুদকের পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন।

২০১৮ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর নাজমুল হুদা বাদী হয়ে শাহবাগ থানায় বিচারপতি এস কে সিনহার বিরুদ্ধে মামলা করেন। সেখানে তিনি অভিযোগ করেছিলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে তার বিরুদ্ধে হওয়া একটি মামলা উচ্চ আদালতে নিষ্পত্তির পরও প্ররোচিত হয়ে মামলাটির রায় পরিবর্তন করা হয়। মামলাটি নিষ্পত্তি করতে দুই কোটি টাকা ও অন্য একটি ব্যাংক গ্যারান্টির আড়াই কোটি টাকার অর্ধেক এক কোটি ২৫ লাখ টাকা উৎকোচ চান এস কে সিনহা। পরে মামলাটি তদন্তের জন্য দুদকে আসে। 

দেড় বছর তদন্ত করে এস কে সিনহার বিরুদ্ধে নাজমুল হুদার মামলাটি মিথ্যা অভিযোগে করা মর্মে প্রমাণিত হয় দুদকে। আর মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে উল্টো নাজমুল হুদার বিরুদ্ধে মামলা করে দুদক।