ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ছাত্র-উপদেষ্টা, হল প্রভোস্ট, প্রেস প্রশাসক, আইসিটি সেল, আইকিউএসির পরিচালকসহ ১২টি প্রশাসনিক পদে পরিবর্তন ও পুনঃনিয়োগ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। পদগুলোতে মেয়াদ পূর্ণ হওয়ায় উপাচার্য অধ্যাপক শেখ আবদুস সালাম এ পদক্ষেপ নেন। রোববার বিষয়টি নিশ্চিত করে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দপ্তর।

জানা যায়, এক বছর শূন্য থাকার পর ছাত্র-উপদেষ্টা পদে নিয়োগ পেয়েছেন হিসাববিজ্ঞান ও তথ্য পদ্ধতি বিভাগের অধ্যাপক শেলিনা নাসরিন। তিনি আগে দেশরত্ন শেখ হাসিনা হলের প্রভোস্টের দায়িত্বে ছিলেন। তার পরিবর্তে হলটিতে ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের অধ্যাপক শামসুল আলমকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে অধ্যাপক তপন কুমার জোদ্দারের পরিবর্তে প্রভোস্ট পদে ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক মাহবুবুল আরফিন দায়িত্ব পেয়েছেন। টিএসসিসির পরিচালক পদে ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক রুহুল কেএম সালেহকে পুণঃনিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইকিউএসি পরিচালক পদে অধ্যাপক কেএম আবদুস সোবহানের পরিবর্তে নিয়োগ পেয়েছেন ফলিত রসায়ন ও কেমিকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মনিরুজ্জামান। একইসঙ্গে অতিরিক্ত পরিচালক হিসেবে বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক রেজওয়ানুল ইসলাম ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক মহব্বত হোসেনকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। আগামী তিনবছরের জন্য এসব পদে তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ল্যাবরেটরির অতিরিক্ত পরিচালক পদে বায়োটেকনোলজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আবু হেনা মোস্তফা জামাল, একই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আজিজুল ইসলাম ও ইইই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক খালিদ হোসেন জুয়েল, আইসিটি সেলের সহকারী পরিচালক পদে সিএসই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মুনতাসির রহমান ও আইসিটি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সাদেক আলী এক বছরের জন্য নিয়োগ পেয়েছেন।

এদিকে রোববার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু হলে আনুষ্ঠানিকভাবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন নবনিযুক্ত প্রভোস্ট অধ্যাপক মাহবুবুল আরফিন। এসময় প্রক্টর অধ্যাপক জাহাঙ্গীর হোসেন, শাপলা ফোরামের নতুন সভাপতি অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, সাম্পাদক অধ্যাপক মামুনুর রহমান প্রমুখ বক্তব্য দেন।