যশোরে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় বেনাপোল বন্দর থানার সাবেক এসআই সাইফুদ্দৌলাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

দীর্ঘদিন আত্মগোপনে থাকা সাইফুদ্দৌলা গতকাল রোববার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন করেন। শুনানি নিয়ে যশোরের স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ শামসুল হক জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

দুদকের পিপি অ্যাডভোকেট আশরাফুল আলম বিপ্লব গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সাইফুদ্দৌলা কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার মথুরাপুর হোসেনাবাদ গ্রামের শরিয়ত উল্লার ছেলে।

৯৩ লাখ ৪৫ হাজার ৪০৯ টাকা জ্ঞাত আয় বহির্ভূত অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ২০১৮ সালের ২৪ জুলাই দুদকের যশোর সার্কেলের সহকারী পরিচালক শহীদুল ইসলাম বাদী হয়ে সাইফুদ্দৌলার বিরুদ্ধে মামলাটি করেন। মামলায় সাইফুদ্দৌলার স্ত্রী লাভলী ইয়াসমিনকেও আসামি করা হয়। লাভলী বর্তমানে জামিনে আছেন

মামলার তদন্তে উঠে আসে, ১৯৯৭ সালের ৩ জানুয়ারি থেকে ২০১৪ সালের ৯ মার্চ পর্যন্ত আসামিরা ৯৩ লাখ ৪৫ হাজার ৪০৯ টাকা জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদের মালিক হন, যার মধ্যে ৪০ লাখ ৮১ হাজার ৪০০ টাকার সম্পদ গোপন করেন। চার্জশিটে আরও উল্লেখ করা হয়, তারা পরস্পর যোগসাজশে অবৈধ উপায়ে এই সম্পদ উপার্জন করেন। পরে সাইফুদ্দৌলা তার স্ত্রী লাভলীর নামে আয়কর নথি খুলে সম্পত্তি বৈধ করার চেষ্টা করেন। চার্জশিট দাখিলের পর এ মামলা বিচারের জন্য স্পেশাল জজ আদালতে পাঠানো হয়।