করোনার নতুন ধরন ওমিক্রন ছড়িয়ে পড়ায় উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা নাইজেরিয়াসহ আফ্রিকার বিভিন্ন দেশ থেকে ভারতে আসা ছয়জন করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তারা সবাই মহারাষ্ট্রে এসেছেন। 

আফ্রিকা থেকে এসে তারা কোথায় কোথায় গেছেন, কার কার সংস্পর্শে এসেছেন তা শনাক্তের চেষ্টা চলছে। মহারাষ্ট্র স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বুধবার সকালে এ তথ্য জানিয়েছে। 

এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আক্রান্তদের মধ্যে কয়েকজনের মৃদু উপসর্গ রয়েছে। কারও কারও করোনার উপসর্গ নেই। তাদের শরীরের করোনার নমুনা জিনোম সিকোয়েন্স পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে।  

নতুন ধরন ওমিক্রন প্রতিরোধে বুধবার সকাল থেকে ভারতের বিমানবন্দরগুলোতে কঠোর কোয়ারেন্টিন কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে দেখা গেছে। করোনার উচ্চ ঝুঁকির দেশগুলো থেকে আসা যাত্রীদের জন্য করোনা পরীক্ষার নিয়ম আরও কঠোর করা হয়েছে। 

বাধ্যতামূলক করা হয়েছে যাত্রীদের করোনা টেস্ট। টেস্টের রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কোনো যাত্রী বিমানবন্দর ত্যাগ করতে পারবে না। তাদের হোম কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে। 

এদিকে মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকারও কঠোর বিষিনিষেধ জারি করেছে। করোনার উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলো থেকে আসা যাত্রীদের জন্য সাত দিন বাধ্যতামূলক প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের নির্দেশ দিয়েছে।    

সর্বশেষ তথ্যমতে, ভারতে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৩ কোটি ৪৫ লাখ ৯৬ হাজারের বেশি। মারা গেছেন ৪ লাখ ৬৯ হাজারের বেশি মানুষ।