‘নতুন নতুন আইন তৈরি করার পরেও দুর্নীতি, ঘুষ, মাদক, গুম, খুন ও ধর্ষণ বন্ধ হচ্ছে না। মানবতা ও মনুষত্ব বিলুপ্ত হয়ে হিংসা-প্রতিহিংসা এবং মানবতাবিরোধী অপতৎপরতা ক্রমেই বেড়ে চলছে। ক্ষমতাসীনদের লুটপাট ও অরাজকতা সাধারণ মানুষের জীবনকে অতিষ্ট করে তুলেছে। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি ও নৈরাজ্য মানুষের জীবনে চরম অশান্তির সৃষ্টি করেছে। সব ধর্মের অনুসারীদের জন্য যার যার ধর্ম পালনের সুযোগ রেখে সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠিত হলেই সব সমস্যার সমাধান হবে।’

বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের মিলনায়তনে ইসলামী সমাজ আয়োজিত আলোচনা সভায় এ কথা বলেন বক্তারা।

সভাপতির বক্তব্যে আয়োজক সংগঠনের আমির সৈয়দ হুমায়ুন কবীর বলেন, ক্ষমতাসীনরা রাষ্ট্রীয় শাসন ক্ষমতার অপব্যবহার করে ব্যক্তি ও দলীয় স্বার্থ হাসিল করছে। আইনকে ক্ষমতার কাছে বন্দি করছে এবং ক্ষমতায় থাকার জন্য সুবিধামত আইন রচনা করছে।

তিনি বলেন, বিশ্বের প্রতিটি রাষ্ট্রে মানুষের সার্বভৌমত্বের ভিত্তিতে মানব রচিত ব্যবস্থার ধারক-বাহক নেতাদের নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠিত থাকায় বিশ্বব্যাপী অশান্তির আগুন জ্বলছে।

তিনি আরও বলেন, ইসলামী সমাজ আল্লাহর নির্দেশিত ও রাসূল (স.) এর প্রদর্শিত পদ্ধতিতে সমাজ ও রাষ্ট্রে ইসলাম প্রতিষ্ঠার আন্তরিক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। দল-মত, জাতি-ধর্ম নির্বিশেষে সবাইকে তিনি ইসলাম প্রতিষ্ঠায় ইসলামী সমাজে শামিল হওয়ার আহ্বান জানান।

আসাদুজ্জামান বুলবুলের সঞ্চালনায় আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় দায়িত্বশীল মুহাম্মাদ ইউসুফ আলী মোল্লা, মুহাম্মাদ ইয়াছিন, সোলায়মান কবীর, আজমুল হক, বিভাগীয় সহকারী দায়িত্বশীল প্রফেসর গুলজার আহমেদ, মো. হুমায়ূন কবীর, সৈয়দ মুহাম্মাদ কবীর, মো. সোহেল প্রমুখ।