বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, দেশের অধিকাংশ রাজনৈতিক দলের নেতা-নেত্রীরা মুখে গণতন্ত্রের কথা বলতে পছন্দ করলেও নিজেরা তা চর্চা করেন না। ফলে গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ সংক্রান্ত তাদের কথাবার্তা নিছক বুলিসর্বস্বতায় পর্যবসিত হয়। গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ প্রশ্নে আপস করার কোনো সুযোগ নেই।

গতকাল শনিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় স্বাধীনতা হলে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের প্রথম অধিবেশনে তিনি এসব কথা বলেন। 'আমরা কী ধরনের পার্টি গড়ে তুলতে চাই' প্রতিপাদ্যে এ অধিবেশনের আয়োজন করা হয়।

সাইফুল হক বলেন, দেশে ক্রিয়াশীল অধিকাংশ রাজনৈতিক দলের মধ্যে নূ্যনতম গণতান্ত্রিক চর্চা না থাকায় রাষ্ট্র-রাজনীতিতে গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ সহজ হয়েছে। শাসক শ্রেণির দলগুলোর মধ্যে ব্যক্তিকেন্দ্রিক একনায়কতন্ত্র কায়েম হওয়ায় রাষ্ট্রে চরম কর্তৃত্ববাদী শাসন কায়েম করা সহজ হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধের চর্চা বিকশিত করতে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে গণতন্ত্র নিশ্চিত করতে হবে।

দলের রাজনৈতিক পরিষদের সদস্য আবু হাসান টিপুর সভাপতিত্বে অধিবেশনে বক্তব্য দেন বহ্নিশিখা জামালী, আকবর খান, আনছার আলী দুলাল, মোজাম্মেল হোসেন, এপোলো জামালী, ডা. মনোয়ার হোসেন, সাইফুল ইসলাম, রুবেল বিশ্বাস, ফিরোজ আহমেদ, রাশিদা বেগম, খলিলুর রহমান, রোকসানা আকতার, ইফতেখার আহমেদ বাবু, কামরুজ্জামান ফিরোজ, ডা. মাহবুবুর রহমান, ডা. বীরেন বর্মন, রাশেদুল ইসলাম, ফাতেমা আকতার পাখী, শাহীন আলম, উমর ফারুক প্রমুখ।