বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নাতনি জাইমা রহমান সম্পর্কে কুরুচিপূর্ণ ও অশ্লীল মন্তব্যের অভিযোগে পদত্যাগী প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসানসহ দুইজনের বিরুদ্ধে করা মামলার আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত।

ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনাল আদালতে বিচারক আসসামছ জগলুল হোসেন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলার আবেদন সোমবার খারিজ করে দেন।

এর আগে রোববার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি দায়ের করেন ঢাকা বারের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক ফারুকী। 

মামলার অপর আসামি হলেন— মহিউদ্দিন হেলাল নাহিদ।

মামলার আবেদনে বলা হয়, আসামিরা ফেসবুক লাইভে ‘উদ্দেশ্যমূলকভাবে জিয়া পরিবার এবং ব্যারিস্টার জাইমা রহমান সম্পর্কে অত্যন্ত কুরুচিপূর্ণ, নারী বিদ্বেষী এবং যে কোনো নারীর জন্য মর্যাদাহানিকর ভাষা’ ব্যবহার করেছেন। যা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

বিভিন্ন টকশো ও অনুষ্ঠানে নানা বিষয়ে বিতর্কিত মন্তব্য ও ঢাকাই সিনেমার এক নায়িকার সঙ্গে অডিও ফাঁসের ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেন ডা. মুরাদ হাসান। একইসঙ্গে জামালপুর আওয়ামী লীগের পদ হারান তিনি।