প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, ৫০ বছর আগে জাতির পিতা আমাদের স্বাধীনতা দিয়ে গেছেন। এই দীর্ঘ সময়ে অনেক পথ পার হয়ে আসতে হয়েছে। ষড়যন্ত্র, হত্যাকাণ্ড, স্বৈরাচারী সরকার। তবে এখন ৫০ বছর পর খুব গর্ব করে বলতে পারি বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্নের সোনার বাংলা বাস্তবায়ন হচ্ছে তার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে।

সোমবার সাভারের শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন ইনস্টিটিউটে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডের পঞ্চম আসরে বিজয়ীদের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ধারণ করা বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি। এদিন চূড়ান্ত যাচাই-বাছাই শেষে ৩১ সংগঠন ও ব্যক্তির হাতে এই পুরস্কার তুলে দেওয়া হয়।

জয় বলেন, যারা নিজেদের পরিশ্রম দিয়ে নিজেদের উদ্যোগে দেশের মানুষের সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তারা সোনার বাংলার একটি উদাহরণ। সোনার বাংলা হচ্ছে আমাদের দেশের মানুষের উন্নয়নের স্বপ্ন। আমার দেশের উন্নয়নের স্বপ্ন। দেশের প্রতিটি মানুষ যাতে সুস্থ থাকে, শান্তিতে থাকে, অভাব না থাকে; সেটাই হচ্ছে সোনার বাংলার স্বপ্ন। সেই স্বপ্নপূরণ করার জন্য আমাদের আওয়ামী লীগ সরকার পরিশ্রম করে যাচ্ছে।

দেশের জন্য কাজ করা তরুণ উদ্যোক্তা ও সংগঠনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে জয় বলেন, আমাদের ভিশন ২০২১ হচ্ছে সেই স্বপ্নের একটি ভিশন। ডিজিটাল বাংলাদেশ সেই স্বপ্নের একটা উদ্যোগ। তবে শুধু সরকারের ওপর নির্ভরশীল থাকলে হবে না। আমাদের দেশে যারা দেশের জন্য পরিশ্রম করছে, তারা সময় দিচ্ছে, অর্থ দিচ্ছে…তারা কারো কাছে হাত পেতে নয়…তাদের ইচ্ছা হচ্ছে বিভিন্ন মানুষের সমস্যা সমাধান করা। তারাই হচ্ছে আমাদের সোনার বাংলার স্বপ্ন।

প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা আরও বলেন, আমরা নিজের পায়ে দাঁড়িয়েছি। লড়াই করে রক্ত দিয়ে স্বাধীনতা অর্জন করেছি। কেউ আমাদেরকে স্বাধীনতা হাতে তুলে দেয়নি। তেমনি সোনার বাংলাও আমরা গড়ছি নিজেদের পরিশ্রম, নিজেদের মেধা দিয়ে। আমরা কারো ওপর নির্ভরশীল না। তাই আমি অত্যন্ত গর্বিত যে আমাদের দেশে ইয়াং বাংলার পার্টিসিপেন্ট এর মতো উদ্যোগ আছে, মেধাবী-তরুণ ছেলেমেয়ে আছে; যারা দেশের জন্য পরিশ্রম করে যাচ্ছে।