হেফাজতে ইসলাম নেতাদের বিরুদ্ধে ওঠা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ ৯ মাসেও প্রমাণ করতে পারেনি দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। চলতি বছরের এপ্রিলে শীর্ষস্থানীয় ৫০ নেতার বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগের অনুসন্ধান শুরু হয়। এরপর গত ৯ মাসে অভিযোগের প্রমাণ না পাওয়ায় কারো বিরুদ্ধেই অভিযোগ নথিভুক্ত করা হয়নি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুরু থেকেই অনুসন্ধানের নামে সময়ক্ষেপণ করা হচ্ছে। সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে তথ্য চাওয়া হচ্ছে। ১৯টি প্রতিষ্ঠানের কাছে তথ্য চেয়ে ইতোমধ্যে ১৭টি প্রতিষ্ঠান থেকে তথ্য পাওয়া গেছে। প্রাপ্ত তথ্যগুলোতে দুর্নীতির প্রমাণ আছে কিনা সেটা স্পষ্ট করে বলা হচ্ছে না। দুদক হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ৫০ নেতা ও তাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১৯ প্রতিষ্ঠানে দুর্নীতির অভিযোগ অনুসন্ধান করছে।

বুধবার দুদক সচিব ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার সাংবাদিকদের বলেন, ইতোমধ্যে হেফাজতে ইসলামের অভিযুক্ত ব্যক্তি-প্রতিষ্ঠানের আয়কর নথি, সরকারি অনুদান, অডিট প্রতিবেদন ও ব্যক্তিগত নথি পাওয়া গেছে। এসব তথ্য যাচাই করা হচ্ছে। ১৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১৭টি প্রতিষ্ঠান থেকে ২০১৬-১৭ অর্থবছর থেকে ২০২০-২১ অর্থবছর পর্যন্ত ওইসব তথ্য সংগ্রহ করা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে মাওলানা মামনুল হকসহ বেশ কয়েকজনের তথ্য পাওয়া গেছে। মামুনুল হক, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা আতাউল্লাহ আমিনী, মাওলানা জালাল উদ্দিন আহম্মেদ ও মোহাম্মদ মহসিন ভূঁইয়ার আয়কর নথিসহ অন্যান্য তথ্য পর্যালোচনা করা হচ্ছে।

দুদক পরিচালক মো. আকতার হোসেন আজাদের নেতৃত্বে একটি বিশেষ অনুসন্ধান টিমের সদস্যরা হেফাজত নেতাদের বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগটি অনুসন্ধান করছেন। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- উপপরিচালক মো. জাহাঙ্গীর আলম, মোহাম্মদ নুরুল হুদা, সহকারী পরিচালক মামুনুর রশীদ চৌধুরী, মো. সাইদুজ্জামান ও উপসহকারী পরিচালক মো. সহিদুর রহমান।

হেফাজতে ইসলামের প্রয়াত আমির জুনায়েদ বাবুনগরীসহ ৫০ জন শীর্ষস্থানীয় নেতার বিরুদ্ধে অনিয়ম, দুর্নীতি, অবৈধ সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচারের অভিযোগ রয়েছে।

দুদকের তালিকায় থাকা ১৯ মাদ্রাসা ও এতিমখানা হলো, চট্টগ্রামের হাটহাজারির জামিয়া আহম্মদিয়া দারুল উলুম মুইনুল ইসলাম বড় মাদ্রাসা, জামিয়া ইসলামিয়া হামিউস সুন্নাহ মাদ্রাসা, জামিয়া ইসলামিয়া ক্বাসেমুল উলুম মাদ্রাসা, জামিয়া হামিদিয়া নাছেরুল ইসলাম মাদ্রাসা, মাহমুদিয়া মদিনাতুল উলুম মাদ্রাসা, ঢাকার মোহাম্মদপুরের জামিয়া রাহমানিয়া আরাবিয়া মাদ্রাসা ও ঢাকার সাতমসজিদ রোডের জামি'আ রহমানিয়া আরাবিয়া কওমী মাদ্রাসা।

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ির বাবুনগর আজিজুল উলুম মাদ্রাসা, আল জামিয়াতুল কোরআনিয়া তালিমুদ্দীন হেফজখানা ও এতিমখানা, ফটিকছড়ি পৌরসভা এলাকার নাজিরহাট আল জামেয়াতুল আরাবিয়া নাছিরুল ইসলাম মাদ্রাসা, ফটিকছড়ির জাফতনগর হাফেজুল উলুম মাদ্রাসা ও এতিমখানা, উত্তর নিশ্চিতপুরের আজম তালুকদার বাড়ির তালিমুল কোরআন বালক-বালিকা মাদ্রাসা ও এতিমখানা, সামিনগর ২নং দাতমারা ইউনিয়ন পরিষদের ভুজপুরের উত্তর বারমাসিয়া হাফেজুল উলুম ইসলামিয়া মাদ্রাসা, ভুজপুরের দাতমারা তালিমুল কোরআন ইসলামিয়া মাদ্রাসা, দাতমারা ছোট বেতুয়া এলাকার সিরাজুল উলুম মাদ্রাসা, ভুজপুরের কাজীর হাট এলাকার আল জামিয়া ইসলামিয়া এমদাদুল ইসলাম মাদ্রাসা, পশ্চিম ভুজপুরের আল মাহমুদ ইসলামিয়া বালক-বালিকা মাদ্রাসা ও পশ্চিম আধার এলাকার আল মাদ্রাসাতুল ইসলামিয়া আরাবিয়া হেফজখানা ও এতিমখানা বালক-বালিকা মাদ্রাসা।