ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আওয়ামী লীগ নেতা জহিরুল হক হত্যা মামলায় ১৩ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে আটজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

রোববার দুপুরে ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান এ রায় দেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেন ওই আদালতের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) আবু আবদুল্লাহ ভূঁইয়া।

উভয়পক্ষের যুক্তিতর্ক শেষে বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান গত বৃহস্পতিবার রায়ের জন্য এ দিন ধার্য করেন।

২০১৬ সালের ১৪ নভেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হককে খুন করা হয়।

এ ঘটনায় তার ভাই কবির হোসেন বাদী হয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলাটি তদন্ত করে ২১ আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় পুলিশ।

মামলার ১৬ আসামি বর্তমানে কারাগারে আছেন। বাকি পাঁচ আসামি পলাতক।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১৪ নভেম্বর সন্ধ্যার পর ব্রাহ্মণবাড়িয়া উত্তর পৌরতলা বাসস্ট্যান্ড থেকে নিজ বাড়িতে ফেরার পথে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী জহিরুল হককে অস্ত্র নিয়ে হামলা করা হয়। এতে মারাত্মক আহত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওইদিন রাতেই হাসপাতালে মারা যান।