ক্যালেন্ডার থেকে বিদায় নিচ্ছে আরেকটি বছর। নতুন বছর নতুন স্বপ্ন নিয়ে ঘরে-বাইরে পরিকল্পনা সাজাবেন অনেকে। তার আগে ২০২১ সালটি কেমন গেল- সেটা ফিরে দেখা যাক।  

অপরাধ ও দুর্ঘটনার দিক বিবেচনায় এই বছর বেশকিছু 'ঘটনা ও দুর্ঘটনা' দেশ-বিদেশে চাঞ্চল্য তৈরি করেছিল। বছরটি শুরুতেই আবারও ধর্মান্ধ গোষ্ঠীর সাম্প্রদায়িক সহিংস রূপ দেখা গেছে। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরের বিরোধিতা করে নেওয়া কর্মসূচি ঘিরে দেশের অন্তত ২০ জেলায় তাণ্ডব চালায় হেফাজতে ইসলাম। এতে ১৩ জনের প্রাণ হারায়। 

এক্ষত্রে সবচেয়ে ভয়াবহ তাণ্ডব চালানো হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়। ২৬ মার্চ ওই জেলায় অন্তত ৫০টি সরকারি-বেসরকারি স্থাপনায় ভাংচুর ও আগুন দেওয়া হয়েছে। সহিংসতার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় হেফাজত নেতা মামুনুল হকসহ সংগঠনটির অনেক শীর্ষ নেতা গ্রেপ্তার হন। 

এরপর গত ১৩ অক্টোবর কুমিল্লার নানুয়ারদিঘীর পাড়ের অস্থায়ী একটি মন্দিরে পবিত্র কোরআন শরীফ রাখার ঘটনায়ও দেশবাসীকে আতঙ্কিত করে। ওই মন্দিরে কোরআন রাখার খবর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পর দেশের বিভিন্ন জায়গায় সাম্প্রদায়িক সহিংসতা ঘটানো হয়। হামলা চালানো, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট করা হয় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মন্দির, ঘর-বাড়ি, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে।

কুমিল্লায় মসজিদে কোরআন রাখার ঘটনায় দেশের বিভিন্ন স্থানে ভাংচুর করা হয় মন্দির -ফাইল ছবি

২০২১ সালে সবচেয়ে বড় অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে নারায়ণগঞ্জে হাসেম ফুডস লিমিটেডে। ৮ জুলাই সেখানে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে নিহত হন ৫৭ শ্রমিক। ওই ঘটনার পর সরাসরি পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ এনে দণ্ডবিধির ৩০২সহ কয়েকটি ধারায় পুলিশ মামলা করে। ওই আগুনের ঘটনার মধ্য দিয়ে কারখানাটি ঘিরে নানা অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা করুণ চিত্র সামনে আসে। সংশ্লিষ্ট সরকারি সংস্থার গাফিলতির তথ্যও উঠে আসে। 

নারায়ণগঞ্জে হাসেম ফুডসের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ফাইল ছবি

এদিকে গত ২৭ জুন মগবাজারের একটি বাড়ির নিচতলায় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এতে ১২ জন মারা যান। পুলিশের তদন্তে উঠে আসে, বিস্ফোরণের ঘটনায় তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের অবহেলা ছিল। প্রায় ছয় দশকের পুরোনো ঝুঁকিপূর্ণ আবাসিক ভবনে বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনার অনুমতি দিয়েছিল রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে নীতিমালা না মেনে জীর্ণ ভবনটিতে উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন চিলার ও কুলার ব্যবহার করেছে বেঙ্গল মিট।

বছরের আরেকটি চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটে কুমিল্লায়। ২২ নভেম্বর বিকেলে নগরীর পাথুরিয়াপাড়া এলাকায় কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের (কুসিক) প্যানেল মেয়র ও ১৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ মো. সোহেলকে সহযোগীসহ কার্যালয়ে গুলি করে হত্যা করা হয়।

এছাড়া এ বছর একাধিক দফায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে রক্ত ঝড়েছে। গত ২২ অক্টোবর গভীর রাতে বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১৮ তে দারুল উলুম নদওয়াতুল ওলামা আল ইসলামিয়া মাদ্রাসায় ছয় রোহিঙ্গাকে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। এর আগে ২৯ সেপ্টেম্বর রাত ৮টা ৪০ মিনিটে কুতুপালং ক্যাম্পে নিজ কার্যালয়ে গুলি করে হত্যা করা হয় আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের চেয়ারম্যান মুহিবুল্লাহকে। জনপ্রিয় রোহিঙ্গা নেতাকে হত্যার পর দেশ-বিদেশে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এছাড়া চলতি বছর ভারতের বেঙ্গালুরুতে বাংলাদেশি তরুণীকে যৌন নির্যাতনের ভিডিও ফাঁস হয়। এরপর ওই ভিডিওর সূত্র ধরে আন্তর্জাতিক নারী পাচারকারী বড় চক্রের তথ্য সামনে আসে। যাদের নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ, ভারত ও মধ্যপ্রাচ্যের কয়েকটি দেশে রয়েছে। 

প্রতারণার অভিযোগ গ্রেপ্তার ইভ্যালির সিইও মোহাম্মদ রাসেল এবং তার স্ত্রী শামীমা নাসরিন -ফাইল ছবি

এছাড়া চলতি বছর ই-কমার্সের নামে প্রতারণায় জড়িত থাকায় ধারাবাহিক অভিযান চালায় পুলিশ ও র‌্যাব। ই-ভ্যালি, ই-অরেঞ্জ, ধামাকাসহ অন্তত ১০টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ৩৩টি মামলা হয়েছে। প্রতারণা ও মানিলন্ডারিং আইনে এসব মামলা হয়। গ্রেপ্তার করা হয়েছে এসব প্রতিষ্ঠানের অনেক কর্মকর্তাকে। 

সুগন্ধা নদীতে আগুনে পুড়ে যাওয়া লঞ্চটি -ফাইল ছবি

বছরে শেষে আরেকটি বড় দুর্ঘটনা প্রাণ গেল ৪৪ জন। গত ২৪ ডিসেম্বর ঝালকাঠির সুগন্ধা নদীতে ঢাকা থেকে বরগুনাগামী অভিযান-১০ লঞ্চে অগ্নিকাণ্ডে এ প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। দক্ষিণাঞ্চল তো বটেই বাংলাদেশের মানুষের জন্য দিনটি বিভীষিকাময় হিসেবে ইতিহাসের পাতায় লেখা থাকবে।