ঢাকা বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪

হার্টের রিংয়ের বৈষম্যমূলক দাম কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

হার্টের রিংয়ের বৈষম্যমূলক দাম কেন অবৈধ নয়: হাইকোর্ট

ফাইল ফটো

সমকাল প্রতিবেদক

প্রকাশ: ১৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | ১৬:৫১

দেশে হৃদরোগীদের চিকিৎসায় ব্যবহৃত সবচেয়ে আধুনিক স্টেন্ট (হার্টের রিং) এর বৈষম্যমূলক দাম কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে বিবাদীদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। 

জনস্বার্থে করা এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিচারপতি জে বি এম হাসান ও বিচারপতি রাজিক আল জলিল সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার এ রুল জারি করেন। আদালতে রিটকারীদের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির। তাকে সহযোগিতা করেন অ্যাডভোকেট বায়েজীদ হোসাইন, নাঈম সরদার ও ব্যারিস্টার সোলায়মান তুষার। 

এর আগে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর ১২ ডিসেম্বর বাংলাদেশে হার্টের রিংয়ের বাজার মূল্য ঠিক করে দেয়। আর ভারতের জাতীয় ওষুধের মূল্য নির্ধারণ কর্তৃপক্ষ ৩১ মার্চ তাদের দেশে স্টেন্টের দাম ঠিক করে দেয়। দুই দেশের তালিকা পর্যালোচনা করে দেখা যায়, প্রায় সব মানের স্টেন্টের মূল্য বাংলাদেশে ভারতের চেয়ে সর্বোচ্চ তিন গুণ বেশি।

ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের এই বৈষম্যমূলক মূল্য নির্ধারণের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে ওশান লাইফ লিমিটেডসহ ১১টি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের পক্ষে রোববার হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ সাতটি প্রতিষ্ঠানসহ সংশ্লিষ্টদের রিটে বিবাদী করা হয়।

এ বিষয়ে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির বলেন, ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের যে দাম নির্ধারণ করেছে তা বৈষম্যমূলক। এর ফলে চারটি প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্যদের জন্য যে মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে তারা ওই দামে হার্টের রিং আমদানিই করতে পারবে না। ফলে বাজারে কেবল টিকে থাকবে চারটি প্রতিষ্ঠান। এর ফলে বাজারে সিন্ডিকেট তৈরি হয়। সাধারণ মানুষ ভোগান্তিতে পড়বে।

আরও পড়ুন

×