পাকিস্তানের উত্তরাঞ্চলে ভয়াবহ তুষার ঝড়ের কারণে বরফে আটকা পড়ে অন্তত ২১ জন নিহত হয়েছেন। বরফের কারণে উত্তরাঞ্চলের মৌরির হিলটপ শহরের কাছে মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে আটকা পড়ে এই নিহতের ঘটনা ঘটে। দেশটির সেনাবাহিনীর সদস্যরা সড়ক পরিষ্কার করে এখনো বরফে আটকা থাকা ব্যক্তিদের উদ্ধারের চেষ্টা চালাচ্ছে।

দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ জানিয়েছেন, তুষার ঝড়ের সময় মহাসড়কে অন্তত এক হাজার গাড়ি আটকা পড়ে। খবর বিবিসি অনলাইনের।  

মৌরি হচ্ছে রাজধানী ইসলামাবাদের উত্তরের পর্বতনির্ভর রিসোর্ট শহর। স্থানীয় সংবাদমাধ্যম শুক্রবার জানিয়েছিল, তুষারের কারণে পর্যটকরা আটকে পড়ছেন। 

পুলিশ জানিয়েছে, ব্যাপক তুষারপাত দেখতে সম্প্রতি মৌরিতে এক লাখের বেশি গাড়ি প্রবেশ করেছে। এরকম তুষারপাত সাধারণত খুব একটা দেখা যায় না। এই বিশাল সংখ্যক গাড়ির কারণেই শহরে ঢোকার এবং বের হওয়ার ক্ষেত্রে বড় যানজট তৈরি হয়।    

পুলিশ আরও জানায়, বরফ জমে গাড়ির ভেতরেই অন্তত ছয় জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে অন্যরা কিভাবে মারা গেছেন তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, বরফ জমে শ্বাস নিতে না পেরে অন্যদের মৃত্যু হতে পারে। এলাকাটিকে দুর্যোগগ্রস্থ ঘোষণা করা হয়েছে এবং লোকজনকে দূরে থাকার আহ্বান জানানো হয়েছে।

উসমান আব্বাসি নামে এক আটকাপড়া পর্যটক মোবাইলে বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, এখনো তুষারপাত হচ্ছে এবং মানুষজন ভয়ানক পরিস্থিতির মুখোমুখি হচ্ছেন। 

গ্যাস এবং পানির সংকটের কথা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, শুধু পর্যটকরাই নয়, স্থানীয়রাও তীব্র সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন।