দেশের বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে আপাতত লকডাউন দেওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। 

রোববার রাজধানীর মহাখালীতে শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালে ঢাকায় নিযুক্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র ও তাদের স্বজনদের জন্য কভিড-১৯ টিকার বুস্টার ডোজ প্রদান কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি এ কথা বলেন। 

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এখনই লকডাউনের কথা ভাবা হচ্ছে না। ওমিক্রন নামে যে নতুন ভেরিয়েন্ট এসেছে তার সংক্রমণ বেশি হলেও এর ফ্যাটালিটি বা আক্রমণ ক্ষমতা কম, মৃত্যুর হারও কম। এ কারনে লকডাউন নিয়ে সাধারণ মানুষকে অসুবিধায় ফেলার কোনো ইচ্ছা সরকারের নেই।’

তিনি বলেন, ‘লকডাউন বিষয়ে আমার একার পক্ষে বলা সম্ভব নয়।  এটা জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়সহ আরও একাধিক মন্ত্রণালয়ের সম্মিলিত সিদ্ধান্তের ব্যাপার। তবে বর্তমান পরিস্থিতিতে মাস্ক পড়াসহ স্বাস্থ্যাবিধি মেনে চলার এবং বিদেশে ভ্রমণ না করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল মোমেন জানান, বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক যারা বাংলাদেশে কর্মরত আছেন তাদের এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের বুষ্টার ডোজ টিকা দেওয়ার কার্যক্রম নেওয়া হয়েছে। প্রথম দিনে ১৬০ জন এই কার্যক্রমের আওতায় বুষ্টার ডোজ নিয়েছেন। 

তিনি আরও বলেন, এরই মধ্যে দেশে সাড়ে ৭ কোটি মানুষকে প্রথম ডোজ এবং সাড়ে পাঁচ কোটি মানুষকে ডাবল ডোজ টিকা দেওয়া হয়েছে। টিকার কোন সংকট নাই। যথেষ্ট টিকা আছে। আরও টিকা বন্ধু রাষ্ট্র থেকে পাওয়া যাবে এবং কেনা হবে। সেজন্যও প্রধানমন্ত্রী যথেষ্ট বরাদ্দ রেখেছেন। অতএব টিকা কার্যক্রমে বাংলাদেশ এগিয়ে আছে।