ত্রিশ জন অভিজাত দৌড়বিদসহ দেশি-বিদেশি প্রায় ২০০ প্রতিযোগীর অংশগ্রহণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। আজ সোমবার ভোর সাড়ে ৫টায় রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়ামে এ ম্যারাথনের উদ্‌বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। প্রতিযোগিতায় ১০০ জন দৌড়বিদ ফুল ম্যারাথন এবং বাকিরা হাফ ম্যারাথনে অংশ নেন। রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়াম থেকে শুরু হয়ে বনানীর কামাল আতাতুর্ক এভিনিউ, গুলশান-২, গুলশান-১ হয়ে হাতিরঝিলে এসে এ ম্যারাথন শেষ হয়। মরক্কো, কেনিয়া, ইউক্রেন, ইথিওপিয়া, লাটভিয়া, ফ্রান্স, স্পেন, আলজেরিয়ারসহ বিভিন্ন দেশের দৌড়বিদরা এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেন। ম্যারাথনের আয়োজনের কারণে আজ দুপুর পর্যন্ত হাতিরঝিলের সড়কে যান চলাচল বন্ধ আছে।

সাফ দেশগুলোর মধ্যে ভারত, মালদ্বীপ, নেপাল, শ্রীলঙ্কার ৩০ জন ফুল ম্যারাথনে অংশ নিচ্ছেন বলে জানান বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথন আয়োজক কমিটির চেয়ারম্যান লেফটেন্যান্ট জেনারেল আতাউল হাকিম সারওয়ার হাসান।

ম্যারাথনের প্রধান পৃষ্ঠপোষক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং প্রধান উপদেষ্টা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ। এ আয়োজনে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সহযোগী হিসেবে আছে আর্মি স্পোর্টস কন্ট্রোল বোর্ড, ট্রাস্ট ইনোভেশন লিমিটেড এবং নেটওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ লিমিটেড। টেকনিক্যাল সহযোগী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্‌স ফেডারেশন।

এদিকে রাজধানীর হাতিরঝিলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ম্যারাথনের কারণে বিভিন্ন সড়কে তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। আজ সকাল থেকে কর্মজীবী ও শিক্ষার্থীরা ভোগান্তিতে পড়েন। মূলত রামপুরা, মহাখালী, বাড্ডা লিংক রোড, মালিবাগ রেলক্রসিং, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল ও মগবাজার এলাকায় যানজট বেশি দেখা গেছে।

ম্যারাথনকে কেন্দ্র করে পুরো হাতিরঝিলে যান চলাচল বন্ধ থাকায় এর আশপাশের সড়কগুলোতে সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। মালিবাগ রেলক্রসিং থেকে গুলশান লিংক রোড পর্যন্ত একদিকের সড়ক বন্ধ থাকায় সেখানে যানজট সবচেয়ে বেশি। রামপুরা ইউলুপ ও এর নিচে কোনো গাড়ি নড়াচড়া করতে পারছে না।

এদিকে বিজয় সরণি হয়ে মহাখালী ও মগবাজারের দিকে চলাচলকারী গাড়িগুলো সড়কে দীর্ঘ সময় ধরে আটকে থাকতে দেখা যায়। উত্তরা থেকে মহাখালী হয়ে মগবাজারের দিকে চলাচলকারী সড়কে তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। মহাখালী থেকে নিকেতন হয়ে গুলশানে প্রবেশের সড়কেও গাড়ির জট ছিল।