ঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশনে বুধবার সন্তান জন্ম দিয়েছেন কনিকা খাতুন নামে এক নারী। স্বামীর সঙ্গে বাবার বাড়ি রাজশাহী যাওয়ার জন্য রেলস্টেশনে আসেন কনিকা। সেখানেই রেলওয়ে পুলিশের দুই নারী সদস্যের সহায়তায় প্রথম সন্তানের জন্ম দেন তিনি। বর্তমানে মা ও নবজাতক সুস্থ আছে বলে জানা গেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, প্ল্যাটফর্মে ট্রেনের অপেক্ষায় থাকা অবস্থায় প্রসব বেদনা ওঠে কনিকার। এ অবস্থায় রেলওয়ে পুলিশের সহযোগিতা কামনা করেন তার স্বামী। খবর পেয়ে রেলওয়ে থানা থেকে দুই নারী পুলিশ সদস্যকে সেখানে পাঠানো হলে তাদের সহয়তায় সেখানেই কন্যাসন্তানের জন্ম দেন ওই মা। পরে কনিকাকে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে নেওয়া হয়।

প্রসূতি কনিকা বলেন, ‘বুঝতে পারিনি আমার সন্তানের জন্ম হওয়ার সময় ঘনিয়ে এসেছিল। বাবার বাড়িতে গিয়ে আমার প্রথম সন্তানের জন্ম হবে বলে ভেবেছিলাম; কিন্তু তার জন্ম হলো স্টেশনেই। আমি প্রথমবার মা হলাম, যেখানে যে অবস্থায় হোক, খুবই আনন্দ অনুভব করছি। আমি খুবই কৃতজ্ঞ ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানার দুই নারী পুলিশ সদস্যদের প্রতি। সময় মতো তারা এগিয়ে না এলে কি হতো জানি না।’

ঈশ্বরদী রেলওয়ে থানার এসআই নজরুল ইসলাম জানান, ‘আমার কাছে সংবাদ এলে আমি শান্তনা পারভিন ও মাহফুজা আক্তার নামে দুই নারী কনস্টেবলকে সহযোগিতার জন্য পাঠাই। তারা সন্তান প্রসবের বিষয়টি জানালে আমি ডাক্তারের কাছে যাওয়ার পরামর্শ দেই। পরে তাকে ঈশ্বরদীর আকলিমা ক্লিনিকে নিয়ে যাওয়া হয়।’