শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগ ও শিক্ষার্থীদের নামে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতীকী অনশন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল। মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের পাদদেশে সংগঠনটির প্রায় তিন শতাধিক নেতাকর্মী এই কর্মসূচি শুরু করেন।

সকাল নয়টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল তিনটা পর্যন্ত তাদের এই কর্মসূচি চলার কথা থাকলেও পুলিশের বাধায় বেলা পৌনে ১২টার দিকে তারা এই কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করে। সকাল ১১টা থেকে শহীদ মিনার এলাকায় শতাধিক পুলিশ সদস্য অবস্থান করছিলেন। সাড়ে ১১ টার দিকে পুলিশ তাদের উঠে যেতে বলে। এসময় পুলিশকে জলকামান নিয়ে প্রস্তুত থাকতে দেখা যায়। পুলিশ তাদের উঠে যেতে বললে বেলা পৌনে ১২টার দিকে সংগঠনের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

কর্মসূচিতে অন্যান্যদের মধ্যে ছাত্রদলের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সহ-সভাপতি কাজী রওনক উল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের আহ্বায়ক রাকিবুল ইসলাম রাকিব, সদস্য সচিব আমান উল্লাহ আমান, যুগ্ম আহ্বায়ক আখতার হোসেন, নাসির উদ্দিন নাসির, জসীম উদ্দিন, জহির উদ্দিন, বদরুন্নেসা কলেজ ছাত্রদলের সদস্য সচিব মাকসুদা রিমা, ইডেন কলেজ ছাত্রদলের সদস্য সচিব সানজিদা ইয়াসমিন তুলিসহ সংগঠনের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা অংশগ্রহণ করেন।

কর্মসূচিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নির্মমভাবে শিক্ষার্থীদের উপর পুলিশি হামলা চালিয়েছেন। তার মতো একজন অথর্ব-অযোগ্য ব্যক্তি একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হতে পারে না। তার পিএইডি ডিগ্রিও নেই অথচ তিনি শাবিপ্রবির মতো একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হয়েছেন অগণতান্ত্রিক উপায়ে। তিনি উপাচার্য নন, বরং আওয়ামী লীগের একজন কর্মী হওয়ার যোগ্য। এসময় তারা অবিলম্বে শাবিপ্রবি উপাচার্যের পদত্যাগ এবং শিক্ষার্থীদের নামে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

সমাপনী বক্তব্যে ফজলুর রহমান খোকন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের দাবির সঙ্গে সংহতি জানান। এসময় তিনি উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদের পদত্যাগের দাবি জানিয়ে বলেন, শাবিপ্রবি উপাচার্য পদত্যাগ না করা পর্যন্ত তাদের আন্দোলন চলবে।