মাঘ মাসের দুই সপ্তাহেও 'বাঘ পালানো' শীত নেই। তবে গতকাল বুধবার শীত কিছুটা বেড়েছে। ঢাকা, রংপুরসহ বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টিকে সঙ্গী করে ফিরেছে কনকনে শীত। গতকাল বিকেলে রাজধানীতে হঠাৎ শুরু হয় মুষলধারে বৃষ্টি। কিছুক্ষণ এমন অবস্থার পর এক ঘণ্টা ধরে থেমে থেমে ঝরে বৃষ্টি। বৃষ্টির সঙ্গে হিমেল হাওয়া শীতের দাপটের কথা জানান দেয়। বৃষ্টিতে বিপাকে পড়েন পথচারী ও অফিস থেকে ঘরমুখী মানুষ।
এর আগে দু'দিন মেঘের কারণে হিমেল হাওয়া প্রবেশ করতে পারেনি। কুয়াশা আর বৃষ্টির কারণে শীতের অনুভূতি বাড়লেও কমেনি তাপমাত্রা। গতকাল উত্তরাঞ্চলে তাপমাত্রা কমতে থাকে। রংপুর নগরে দেখা যায়নি সূর্য। ঘন কুয়াশায় আচ্ছন্ন ছিল নগর ও গ্রামের জনপদ। এরই মধ্যে হয়েছে বৃষ্টি। সেই সঙ্গে বয়ে যায় উত্তরের কনকনে ঠান্ডা বাতাস। পঞ্চগড়ে তিন দিন বিরতির পর আবারও বইতে শুরু করেছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। ঘন কুয়াশার সঙ্গে ঝিরঝির বাতাসে বেড়েছে শীতের তীব্রতা। গতকাল বুধবার পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
তেঁতুলিয়া আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাসেল শাহ বলেন, তিন দিন বিরতির পর আবারও তেঁতুলিয়ায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে শুরু করেছে। সম্প্রতি আকাশে মেঘ বেড়ে যাওয়ায় তাপমাত্রা কিছুটা বেড়েছিল। এখন তেঁতুলিয়ার আকাশের ৮ ভাগের ২ ভাগজুড়ে মেঘ আছে। কুয়াশাও বেড়েছে। সেই সঙ্গে উত্তরের ভারি শীতল বাতাস তেঁতুলিয়ায় সরাসরি ঢোকায় তাপমাত্রা কিছুটা কমে গেছে, শীত বেশি অনুভূত হচ্ছে। কয়েক দিন তেঁতুলিয়ায় মৃদু শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ বজলুর রশীদ বলেন, গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টির প্রভাব আজ কেটে যেতে পারে। আজ থেকে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত তাপমাত্রা কমে শীতের দাপট বাড়তে পারে। এবার মৌসুমে শীতের তীব্রতা অন্যবারের চেয়ে কম। তিন দফা শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেলেও তা ছিল স্বল্পকালীন এবং মৃদু থেকে মাঝারি।

বিষয় : বৃষ্টিকে সঙ্গী করে এলো কনকনে শীত

মন্তব্য করুন