রাজধানীর বনানীর কামাল আতার্তুক অ্যাভিনিউয়ে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আলেশা মার্টের প্রধান কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম শিকদারকে দিনভর আটকে রেখেছেন ভুক্তভোগী গ্রাহকরা। কয়েকজন গ্রাহক তাকে লাঞ্ছিতও করেছেন।

দিনভর আটকে থাকায় অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। পরে বনানী থানা পুলিশ তাকে উদ্ধার করে বাসায় দিয়ে আসে।

ভুক্তভোগীরা জানান, আলেশা মার্ট পণ্য দেওয়ার নাম করে বিপুল সংখ্যক গ্রাহকের কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি গ্রাহকদের পণ্যও দিচ্ছে না, টাকাও ফেরত দিচ্ছে না।

তারা আরও জানান, আলেশা মার্টের মালিক মাঝেমধ্যে ফেসবুকে লাইভ করে গ্রাহকদের কাছে সময় নেন। কিন্ত তার সময় আর শেষ হয় না।

এরমধ্যে বৃহস্পতিবার চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলম শিকদার প্রধান কার্যালয়ে অবস্থান করছেন-এমন খবর পেয়ে শতাধিক গ্রাহক সেখানে গিয়ে তাকে আটকে রাখেন। রাতে পুলিশ যায় সেখানে। পুলিশ গ্রাহকদের সরানোর চেষ্টা করে। এ সময় কয়েকজন গ্রাহক আহত হন বলে অভিযোগ উঠেছে।

বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নূরে আযম মিয়া সমকালকে বলেন, রাতে আলেশা মার্টের চেয়ারম্যান অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন। এরপর ৯টার দিকে তাকে উদ্ধার করে তার বাসায় রেখে আসা হয়।