হাইকোর্টের আদেশের পরও রাজনৈতিক দল হিসেবে গণসংহতি আন্দোলনকে নিবন্ধন না দেওয়ায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করা হয়েছে। এটি করেছেন দলটির সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি।

মামলায় নূরুল হুদার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার কারণে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা চাওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার জোনায়েদ সাকির পক্ষে ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া হাইকোর্টে এ মামলা করেন।

পরে ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া সাংবাদিকদের বলেন, ২০১৭ সালের ২৮ ডিসেম্বর গণসংহতি আন্দোলন রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধন চেয়ে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আবেদন করে। পরে ২০১৮ সালের ১৯ জুন এক চিঠির মাধ্যমে দলটির নিবন্ধন হবে না বলে জানায় ইসি। এ পর্যায়ে হাইকোর্টে রিট করা হলে ২০১৯ সালের ১১ এপ্রিল গণসংহতি আন্দোলনকে রায় পাওয়ার ৩০ দিনের মধ্যে নিবন্ধন প্রদানের আইনগত প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। কিন্তু এখানও ইসি ওই রায় প্রতিপালন করেনি। গত বছরের ১০ অক্টোবর প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে আইনি নোটিশ পাঠানো হলেও তিনি পদক্ষেপ নেননি। তাই তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলাটি করা হয়েছে।