ভারতে নতুন অর্থবছরের প্রথম দিনে এক ধাক্কায় সিলিন্ডারপ্রতি ২৫০ রুপি বাড়ল বাণিজ্যিক গ্যাসের দাম। অ্যাভিয়েশন টার্বাইন ফুয়েলের দাম বাড়লো ২ শতাংশ। গত দুই মাসে এ নিয়ে প্রায় ৩৪৬ রুপি বেড়ে গেল বাণিজ্যিক গ্যাসের ১৯ কেজি সিলিন্ডারের দাম। এর ফলে হোটেল ব্যবসায়ী ও এলপিজিচালিত গাড়ির মালিকরা সমস্যায় পড়বেন। পরোক্ষ প্রভাব পড়বে পণ্যের বাজারেও। 

শুক্রবার সকালে কার্যকর হওয়া দাম অনুযায়ী, দিল্লিতে বাণিজ্যিক গ্যাসের ১৯ কেজির সিলিন্ডার বিক্রি হচ্ছে ২ হাজার ২৫৩ রুপিতে। তবে স্বস্তির খবর হলো, ঘরোয়া কাজে ব্যবহৃত এলপিজি বা রান্নার গ্যাসের দাম এ দিন বাড়ানো হয়নি। গত মাসের শুরুতে এক ধাক্কায় ৫০ রুপি বেড়েছিল ঘরোয়া এলপিজি সিলিন্ডারের দাম। এ দিনও কলকাতায় ১৪ কেজি এলপিজির সিলিন্ডার মিলছে ৯৭৬ রুপিতে। 

এদিকে বাণিজ্যিক গ্যাসের মতো শুক্রবার থেকে এক ধাক্কায় অনেকটা বেড়ে গেছে বিমানের জ্বালানির দামও। অ্যাভিয়েশন টার্বাইন ফুয়েল অর্থাৎ এটিএফ-এর দাম এ দিন বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে ২ শতাংশ। শুক্রবার থেকে ১ কিলোলিটার অ্যাভিয়েশন টার্বাইন ফুয়েলের দাম বাড়ছে ২ হাজার ২৫৮ রুপি ৫৪ পয়সা করে। এখন থেকে দিল্লিতে এটিএফ বিক্রি হবে ১ লক্ষ ১২ হাজার ৯২৪ রুপি ৮৩ পয়সা প্রতি কিলোলিটার।

অন্যদিকে ১০ দিনে ৭ বার দাম বৃদ্ধির পরে শুক্রবার তৃতীয় দিনের মতো অপরিবর্তিত রয়েছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। বর্তমানে রাজধানী দিল্লিতে লিটার প্রতি পেট্রোল ১০১.৮ রুপি এবং লিটার প্রতি ডিজেল ৯৩.০৭ রুপি। কলকাতায় লিটার প্রতি পেট্রোলের দাম ১১১.৩৫ টাকা এবং লিটার প্রতি ডিজেল ৯৬.২২ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

গত ২২ মার্চ থেকে লাগাদার দাম বাড়ছে পেট্রোল ও ডিজেলের। এর মধ্যে মাত্র দু’দিন দাম অপরিবর্তিত রাখা হয়। পেট্রোল ইতিমধ্যেই সর্বকালীন রেকর্ড গড়ে ১১১ টাকা হয়ে গেছে। 

পেট্রোল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে এরই মধ্যে পথে নেমেছে কংগ্রেস ও বাম দলগুলো। আগামী সোমবার থেকে পেট্রোল-ডিজেলের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে লাগাতার আন্দোলনের ডাক দিয়েছে সিপিআইএম। যদিও বিজেপি বলছে- আন্তর্জাতিক বাজারে দামের সঙ্গে সামঞ্জস্য রাখতে গিয়েই দাম বাড়ছে পেট্রোল-ডিজেলের।