প্রচণ্ড গরমের মধ্যেই শুরু হয়েছে রমজান মাস। যারা রোজা রাখছেন, দীর্ঘ সময় ধরে কোনো ধরনের খাবার-দাবার গ্রহণ না করার কারণে শরীরে পানিশূন্যতা দেখা দিচ্ছে।  গরম আর ধূলাবালির কারণে ত্বকও হয়ে পড়ে মলিন।

রোজা রাখার কারণে শরীর ডিটক্সিফাই হয়। সেই সঙ্গে মনও ভালো থাকে। তারপরও এই সময় ত্বকের বাড়তি যত্ন নেওয়া প্রয়োজন।  

সাধারণত পানি ও বিভিন্ন স্বাস্থ্যকর পানীয় শরীরের আর্দ্রতা বজায় রাখে। পাশাপাশি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, টক্সিন বের করে দেয় এবং শক্তি জোগায়। একইভাবে, পানি ত্বকেরও আর্দ্রতা বজায় রাখে। এজন্য সাহরি ও ইফতারে পর্যাপ্ত পানি পান করা প্রয়োজন। এছাড়াও কিছু কিছু সুপারফুড যেমন- অ্যাভোকাডো, ডালিম ত্বকের মরে যাওয়া কোষ পুনরুজ্জীবিত করতে সহায়তা করে।

রোজার দিনে ত্বকের যত্নে ঘরোয়া কিছু পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন। এজন্য সকালে ঘুম থেকে উঠেই যদি মুখে কিছুটা বরফ ঘষে নেন, তাহলে চোখের ফুলে থাকা ভাব অনেকটাই কমে আসবে। বরফত্বকের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে কোষগুলোকে আরও সজীব করে তোলে। তার সঙ্গে মুখের তৈলাক্ত ভাব দূর হয়। ফলে ত্বকের মলিন ভাবও চলে যায়।

ওজু করার সময় এমনিতেই চোখেমুখে পানি দিতে হয়। তারপরও  ত্বক ভালো রাখতে চেখেমুখে কয়েকবার পানির ঝাপটা দিতে পারেন।  এতে ত্বক সতেজ থাকে।

রমজান মাসে যতটা সম্ভব ভাজাপোড়া খাবার এড়িয়ে চলুন। প্রচুর পানিযুক্ত ফল খাওয়ার চেষ্টা করুন। ইফতারের পরে প্রতি ঘণ্টায় পানি পান করুন।