জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে বাহাদুরাবাদ-বালাশী নৌপথে পরীক্ষামূলক লঞ্চ সার্ভিস চালু হয়েছে।  শনিবার বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ-বিআইডব্লিউটিএর আয়োজনে লঞ্চ সার্ভিস উদ্বোধন করেন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, যমুনার পশ্চিম পাড়ের ৯টি জেলার সঙ্গে ঢাকা-ময়মনসিংহের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপন করতে সরকার বাহাদুরাবাদ ও বালাশী ফেরিঘাটসহ আনুষাঙ্গিক স্থাপনা নির্মাণ প্রকল্প হাতে নিয়েছে। জনগণ সুবিধা ভোগ করতে শুরু করছে। বাহাদুরাবাদ- বালাশী নৌপথে নাব্যতা ধরে রাখতে সার্বক্ষণিক ড্রেজিং করা হবে।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআইডব্লিউটিএ) চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেকের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান মো. সোলায়মান হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কামরুন্নাহার শেফা ও অন্যরা।

২০১৭ সালে যমুনার পূর্বপাড়ে বাহাদুরাবাদ ও পশ্চিমপাড়ে বালাশী ফেরিঘাটসহ আনুষাঙ্গিক স্থাপনাদি নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের কাজ শুরু হয়। তখন বিআইডব্লিউটিএ জানিয়েছিল, বঙ্গবন্ধু সেতুর বিকল্প হিসেবে এই রুটে যাতায়াত সহজতর হবে এবং সময়ও কম লাগবে। গত বছর জুন মাস নাগাদ ওই প্রকল্পের কাজ শেষ হয়। 

প্রকল্পে দুপাড়ে পৃথক পুলিশ ব্যারাক, ফায়ার সার্ভিস, আনসার ব্যারাক, পাইলট হাউজ, ওয়েট ব্রিজ স্কেল, মসজিদ, রেষ্টুরেন্ট, টয়লেট কমপ্লেক্স ও ওয়েটিং শেড, বিআইডব্লিউটিএর অফিস ঘর, টোল বুথ এবং সুবিশাল টার্মিনাল নির্মাণ করা হয়। 

কিন্তু নদী খনন কাজ শেষ না হওয়ায় এতদিন এ রুটে লঞ্চ বা ফেরি চলাচল সম্ভব হয়নি। অন্যদিকে বাস ট্রাক চলাচলের জন্যে দুপাশে প্রশস্ত সড়কও নির্মাণ করা হয়নি। যদিও কর্তৃপক্ষ বলছে, বাস-ট্রাক চলাচলের জন্যে যে সড়ক রয়েছে তাতেই আপাতত কাজ চলবে।