ফরিদপুরে জনশুমারি ও গৃহগণনা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা শুরু শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ফরিদপুর সার্কিট হাউজে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়। এ কার্মশালা উদ্বোধন করেন ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক অতুল সরকার।

জেলা প্রশাসক অতুল সরকার বলেন, ‘দেশের প্রকৃত অবস্থা জানতে ও বুঝতে নির্ভুল ও সঠিক পরিসংখ্যান জরুরি। কেননা পরিসংখ্যানের ওপর নির্ভর করে দেশের কর্ম পরিকল্পনা প্রণয়ন করা হয়। যদি পরিসংখ্যান ভুল হয় তাহলে দেশের পরিকল্পনা অনুযায়ী কাজ করা কঠিন হয়ে যাবে। তাই বর্তমানে জনশুমারি ও গৃহগণনার যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এবং এ কাজে যারা যুক্ত রয়েছেন তাদের সততা, নিষ্ঠা ও স্বচ্ছতার সাথে কাজ করতে হবে।’

জেলা পরিসংখ্যান অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মিনাক্ষী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) সামন রঞ্জন সরকার, সরকারি ইয়াছিন কলেজের অধ্যক্ষ শিলা রানী মণ্ডল, দৈনিক প্রথম আলোর নিজস্ব প্রতিবেদক পান্না বালা।

বক্তারা বলেন, দেশের প্রকৃত চিত্র পাওয়া যায় নির্ভুল ও সঠিক পরিসংখ্যানে। এজন্য পরিসংখ্যান নির্ভুল করার জন্য দায়িত্বশীল ও সৎ হতে হবে। এক্ষেত্রে সততার কোনো বিকল্প নেই। এবার পরিসংখ্যান লিপিবদ্ধ করা হবে ট্যাবের মাধ্যমে। তাই ঘরে বসে এ কাজ করার কোনো সুযোগ নেই। সবার ঘরে ঘরে যেতে হবে সঠিক পরিসংখ্যান তুলে ধরতে হবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, জনশুমারি ও গৃহগণনা ২০২২-এর তৃতীয় জোনাল অপারেশন কার্যক্রমে ফরিদপুর জেলার ৫২ জন উপজেলা শুমারি সমন্বয়কারী এবং ৯ জন জোনাল কর্মকর্তাদের দুইদিনব্যাপী এ প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। আগামী ১৫-২১ জুন মূল শুমারি অনুষ্ঠিত হবে। ফরিদপুরের নয়টি উপজেলাকে তিন ভাগে ভাগ করে এ জনশুমারি ও গৃহগণনানর কাজ পরিচালনা করা হবে।