র‌্যাগিংয়ের দায়ে যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ১৩ শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন মেয়াদে আবাসিক হল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। এরমধ্যে ৩ জনকে স্থায়ী ও ১০ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মসিয়ূর রহমান হল প্রশাসন।

বুধবার রাতে শহীদ মশিয়ূর রহমান হলের প্রভোস্ট ড. মো. আশরাফুজ্জামান জাহিদ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়।

অফিস আদেশে জানানো হয়, স্থায়ীভাবে বহিষ্কৃতরা হলেন-এনভায়রনমেন্টাল সাইন্স অ্যান্ড টেকনোলজি (ইএসটি) বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী মো. আল আমিন, গণিত বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী সোহেল রানা এবং পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী মো. বারিউল হক মুবিন।

সাময়িক বহিষ্কৃতরা হলেন- পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী মাহবুব হাসান রকি ও মো. রায়হান রহমান রাব্বি, রসায়ন বিভাগের ২০১৮-১৯ সেশনের শিক্ষার্থী শেখ জুবায়ের, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং (সিএইচই) বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী মো. পারভেজ মিয়া, মো. সালমান মোল্যা ও মো. নাজমুস সাকিব, ইএসটি বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থী মো. মোহাইমিনুল হক, মো. সাইমুন নাইচ ও মো. খালিদুজ্জামান সৌরভ এবং বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং (বিএমই) বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থী রাফিউর রহমান অপূর্ব। তাদেরকে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টার মধ্যে হল ত্যাগের নির্দেশ দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, গত ১৭ই এপ্রিল রাতে পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী মো. সাব্বির আলমকে শহীদ মসিয়ূর রহমান হলের ৩২১ নম্বর রুমে ডেকে নিয়ে মানসিক ও শারীরিক নির্যাতন করা হয়।