বগুড়ার শিবগঞ্জে মসজিদের কমিটি গঠনকে কেন্দ্র করে দু'পক্ষের সংঘর্ষে ইমাম, ইউপি সদস্যসহ ১২ জন আহত হয়েছেন। শুক্রবার জুমার নামাজের সময় উপজেলার আটমুল ইউনিয়নের রামেরকান্দি চককানু শাহি জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পুলিশ ৯ জনকে আটক করেছে।

স্থানীয়রা জানান, চককানু শাহি মসজিদের ইমাম ও মুয়াজ্জিন নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে এলাকার মনোয়ার হোসেন ও ইউপি সদস্য জহুরুল ইসলামের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এরই জের ধরে শুক্রবার জুমার নামাজের পর ইউপি সদস্য জহুরুল ইসলাম মসজিদের কমিটি গঠনের বিষয়ে বক্তব্য দিতে গেলে মনোয়ারের পক্ষের লোকজন তাতে বাধা দেন। এ সময় উভয় পক্ষের মাঝে বাগ্‌বিতণ্ডার এক পর্যায়ে সংঘর্ষ শুরু হয়। রড ও বাঁশের লাঠি নিয়ে দু'পক্ষ হামলায় অংশ নেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

আহত ইউপি সদস্য জহুরুল ইসলাম, ইমাম মাজেদ আলী, আনিছার রহমান, আব্দুল মোত্তালেব, আবু সাঈদ, আব্দুল বাছেদ, জয়নাব বেগম, মিনারা বেগম, ফুলি বেগম, সোহাগ, সফু ও মনোয়ার হোসেনকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আটক ব্যক্তিরা হলেন- রামকান্দি গ্রামের আহম্মেদ আলীর ছেলে আবু তালেব, মৃত জোব্বারের ছেলে শাহজাহান, গোলাম ইয়াছিনের ছেলে রুহুল আমিন, জোব্বার আলীর ছেলে ইসারত আলী, জোব্বার আলীর ছেলে গোলাম মোস্তফা, চককানু গ্রামের মৃত বুলু মিয়ার ছেলে আব্দুল হাকিম, আবু সালেমের ছেলে সেলিম, বুলু মিয়া ছেলে বিশা, মৃত কছির উদ্দিনের ছেলে খোরশেদ আলী।

এ ব্যাপারে শিবগঞ্জ থানার ওসি দীপক কুমার দাস বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের ৯ জনকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এখনও কোনো পক্ষই লিখিত অভিযোগ দেয়নি।