তরুণদের ক্ষমতায়ন ও উদ্বুদ্ধকরণে দেশের অন্যতম সংগঠন ‘ইয়াং বাংলা’র সদস্য হয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) ট্রাস্টি রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিকের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক পোস্টে এ তথ্য জানানো হয়।

পোস্টে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার মা শেখ রেহানার সঙ্গে তোলা একটি ছবি শেয়ার করে রাদওয়ান মুজিব লিখেন, ইয়াং বাংলার নতুন সদস্য! এসময় প্রধানমন্ত্রীর মুখে ছিল ইয়াং বাংলার লোগো সংবলিত মাস্ক।

৫০ হাজার স্বেচ্ছাসেবী ও ৩১৫টি সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে চলা ইয়াং বাংলার সদস্য সংখ্যা দুই লাখেরও বেশি। এ সংগঠনে এবার নতুন সদস্য হিসেবে যোগ দিলেন প্রধানমন্ত্রীও।

দেশের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডে তরুণ প্রজন্মকে সরাসরি অন্তর্ভুক্ত করার উদ্দেশে তাদের নতুন ধারণা ও উদ্ভাবনগুলোকে তুলে আনার জন্যই ২০১৪ সালের ১৫ নভেম্বর আত্মপ্রকাশ করে ইয়াং বাংলা প্ল্যাটফর্ম।

ইয়াং বাংলার নতুন সদস্য!

Posted by Radwan Mujib Siddiq on Saturday, 14 May 2022

তরুণ ও যুবশক্তিকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশকে ২০২১ সালে মধ্যম আয়ের দেশ ও ২০৪১ সালের মধ্যে উচ্চ আয়ের দেশে রূপান্তরের ভিশনকে সামনে নিয়ে যে কর্মযজ্ঞ শুরু হয়েছে, সেটাকে আরও গতিশীল করতে ‘তোমার জয়ে বাংলার জয়’ স্লোগানে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রায় তারুণ্যের শক্তিকে কাজে লাগাতে ইয়াং বাংলা আত্মপ্রকাশ করে।

এ প্ল্যাটফর্ম থেকে তরুণদের ক্ষমতায়ন ও দেশ গঠনে তাদের অবদান তুলে ধরার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সিআরআইয়ের তত্ত্বাবধানে প্রতি বছর সমাজ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাওয়া যুব উদ্যোক্তা ও সংগঠনকে অনুপ্রাণিত করতে প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের স্বীকৃতি হিসেবে ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’ দেওয়া হচ্ছে।

বিশেষ করে দেশ ও মানুষের কল্যাণে যেসব তরুণ উদ্যোক্তা ও সংগঠন কাজ করে যাচ্ছে তারাই পান ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’।

এছাড়া ৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণকে তরুণদের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে এই প্রতিষ্ঠানের তত্ত্বাবধানে আয়োজন করা হচ্ছে ‘জয় বাংলা কনসার্ট’। জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ৭ মার্চের ভাষণের দিনে জয় বাংলা কনসার্টে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এদিকে দেশের প্রধানমন্ত্রীকে সদস্য হিসেবে পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করছেন ইয়াং বাংলার অন্য সদস্যরা।