খুলনার বটিয়াঘাটা উপজেলায় স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও তার খালাতো বোনকে ধর্ষণের চেষ্টা মামলায় ৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রোববার রাতে ও সোমবার সকালে পৃথক অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে র‍্যাব-৬ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোঃ মোস্তাক আহমেদ জানান, সোমবার ভোর পাঁচটার দিকে বটিয়াঘাটার ফুলবাড়িয়া থেকে গ্রাম থেকে মুজাহিদ শেখ ও আজিজুল মোল্লা ওরফে মিশরীয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়।

বটিয়াঘাটা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহ জালাল জানান, তারা পৃথক অভিযান চালিয়ে নাইম মোড়ল নামে আরেক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছেন। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর মা বাদী হয়ে মামলা করেছেন।

তিনি জানান, গত শনিবার রাতে বটিয়াঘাটায় এক স্কুলছাত্রীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ এবং তার খালাতো বোনকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়। ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী বর্তমানে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

এদিকে গত রোববার দুপুরে নগরীর ছোট মির্জাপুর এলাকায় এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় রাতে খুলনা সদর থানায় মামলা করেন ওই ছাত্রীর বাবা। মামলায় পিবিআই খুলনার ইন্সপেক্টর মঞ্জুরুল ইসলাম মাসুদ ও তার এক সহযোগীকে আসামি করা হয়েছে। এ মামলায় এখনো কেউ গ্রেপ্তার হয়নি।

তবে খুলনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাসান আল মামুন জানান আসামিদের গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান অব্যাহত রয়েছে। ধর্ষণের শিকার কলেজছাত্রী খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।