ইউক্রেনে যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর জাহাজ বাংলার সমৃদ্ধিতে কর্মরত অবস্থায় গোলার আঘাতে নিহত নৌ প্রকৌশলী হাদিসুর রহমানের পরিবারের ৫ লাখ ডলার ক্ষতিপূরণ পাওয়ার ব্যবস্থা হয়েছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ শিপিং করপোরেশন (বিএসসি)।

বুধবার ঢাকায় বিএসসি টাওয়ারে অনুষ্ঠিত বিএসসির পরিচালনা পর্ষদের ৩১২তম বৈঠকে এই তথ‍্য জানানো হয় বলে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে।

গত ২ মার্চ ইউক্রেইনের ওলভিয়া বন্দরে রকেট হামলায় নিহত হন জাহাজটির থার্ড ইঞ্জিনিয়ার হাদিসুর। গোলার আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত ওই জাহাজটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করতে হয়। জাহাজের ২৯ নাবিককে মলদোভা-রোমানিয়া হয়ে দেশে ফিরিয়ে আনা হয়। আর ১৪ মার্চ দেশে আনা হয় হাদিসুরের মরদেহ, পরে দাফন করা হয় বরগুনায় তার বাড়িতে।

ডলারের দাম চড়া থাকায় বর্তমান বিনিময় মূল্য অনুযায়ী ক্ষতিপূরণের এই অঙ্ক প্রায় ৫ কোটি টাকার সমান। তবে কবে কিংবা কীভাবে এই ক্ষতিপূরণ আসবে, তা বিজ্ঞপ্তিতে স্পষ্ট করা হয়নি।

নৌ মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, হাদিসুরের এক ভাইকে শিপিং করপোরেশনে চাকরিও দেওয়া হয়েছে। তিনি আগামী ১ জুন কাজে যোগ দেবেন। জাহাজের অন্য সব ক্রুকে সাত মাসের বেতন দেওয়া হচ্ছে বলেও বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ শিপিং কর্পোরেশনের (বিএসসি) পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম‍্যান খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর অংশগ্রহণে এই সভায় পরিচালনা পর্ষদের সদস্য নৌপরিবহন সচিব মোস্তফা কামাল, স্বতন্ত্র পরিচালক অধ্যাপক এম শাহজাহান মিনা, স্বতন্ত্র পরিচালক মো. আবদুর রহমান, বিএসসির ব‍্যবস্থাপনা পরিচালক কমডোর এস এম মনিরুজ্জান, অর্থ বিভাগের যুগ্ম পরিচালক নাসিমা পারভীন,পীযূষ দত্ত ও মোহাম্মদ ইউসুফ উপস্থিত ছিলেন।