থ্যালাসেমিয়া বাহকের নাম জাতীয় পরিচয়পত্রে (এনআইডি কার্ড) যুক্ত করার নির্দেশনা চেয়ে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বুধবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ এ নোটিশ পাঠান।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি), স্বাস্থ্য সচিব, আইন সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (ডিজি) ও বিএমডিসি কর্তৃপক্ষকে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে। সংশ্লিষ্টরা এ নোটিশের জবাব না দিলে পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও নোটিশে বলা হয়েছে।

নোটিশে বলা হয়, একজন থ্যালাসেমিয়া বাহক অন্য থ্যালাসেমিয়া বাহককে বিয়ে করলে তাদের সন্তান এই রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকবে। দুজন থ্যালাসেমিয়া বাহকের মধ্যে যদি বিয়ে হয়েই যায় কিংবা স্বামী-স্ত্রী দুজনই থ্যালাসেমিয়া বহন করে তাহলে সন্তান গর্ভে আসার ৮ থেকে ১৪ সপ্তাহের মধ্যে কোরিওনিক ভিলাস স্যাম্পল বা এমনিওসেন্টেসিস করে বাচ্চার অবস্থা জানা সম্ভব।

নোটিশে আরও বলা হয়, বিয়ের আগেই রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে প্রত্যেককে জানতে হবে তারা থ্যালাসেমিয়া বাহক কি না। দুজন থ্যালাসেমিয়া বাহকের মধ্যে বিয়ে বন্ধ করা গেলেই থ্যালাসেমিয়া রোগ প্রতিরোধ করা সম্ভব।