নরসিংদীতে সহকর্মীকে ‘ভয়ভীতি দেখিয়ে একাধিকবার ধর্ষণের’ অভিযোগে আশরাফুল আলম ওরফে আলম (২৫) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে নরসিংদী জেলা পুলিশ। 

নরসিংদী সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ফিরোজ তালুকদার সমকালকে জানান, ‘নির্যাতনের শিকার’ তরুণী বৃহস্পতিবার আশরাফুল আলমের বিরুদ্ধে নরসিংদী সদর মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আশরাফুল আলমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 

আশরাফুল আলম ওরফে আলম (২৫) নরসিংদী পৌর এলাকার নাগরিয়াকান্দি এলাকার জনি মিয়ার ছেলে ও নাগরিয়াকান্দির শেখ হাসিনা সেতুর পূর্ব পাশের একটি রেস্টুরেন্টের কর্মী।

পুলিশ জানায়, ‘নির্যাতনের শিকার’ ওই তরুণীও নাগরিয়াকান্দি এলাকার ভাড়া বাসায় থাকেন। পাশাপাশি ওই এলাকার রেস্টুরেন্টে কর্মী হিসেবে চাকুরি করেন। আশরাফুলও একই রেস্টুরেন্টে কাজ করেন। 

তরুণীর অভিযোগ, আশরাফুল আলম বিভিন্ন সময় তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি না হওয়ায় ভয়ভীতি দেখিয়ে গত ১৫ জুন রাত সাড়ে ৯টার দিকে ওই রেস্টুরেন্টের ভেতরের কক্ষে প্রবেশ করলে আলম তাকে ‘জোরপূর্বক ধর্ষণ’ করে। এরপর থেকে ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন দিনে বিভিন্ন স্থানে নিয়ে গিয়ে তাকে ‘ধর্ষণ করে’ বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ওসি ফিরোজ তালুকদার বলেন, অভিযোগ পেয়ে নির্যাতিতা নারীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।