আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য কোন রাজনৈতিক দলকে বন্যা দুর্গত মানুষদের পাশে দেখা যায়নি-সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসকের এই বক্তব্যের নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়দাবাদী দল (বিএনপি) এর জেলা কমিটির নেতারা। শনিবার দুপুরে শহরের একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তারা। এসময় সুনামগঞ্জ জেলাকে দুর্গত এলাকা ঘোষণার দাবি জানান তারা। 

সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন, সরকার দুর্যোগ মোকাবেলায় দক্ষতার পরিচয় দিতে পারেনি।

তারা আরও বলেন, বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে জেলা প্রশাসকের বক্তব্য শুনে দ্বিধান্বিত হয়েছেন। তিনি একজন সরকারি কর্মকর্তা নাকি সরকারি দলের জেলা কমিটির নেতা তা বিভ্রান্তি তৈরি করেছে। এই দুর্যোগের সময়ে সর্বদলীয় বৈঠক ডেকে দুর্গত মানুষের পাশে ব্যাপক ভিত্তিতে দাঁড়ানোর সুযোগ তৈরির পরিবর্তে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি বারবার আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের গুণকীর্তন করেছেন।

সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ বলেন, বিএনপি অত্যন্ত দৃঢ়তার সাথে ও ঘৃণাভরে জেলা প্রশাসকের এমন অসত্য বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করছে।

জেলা প্রশাসকের বক্তব্যের ৪ দিন পর কেন প্রতিক্রিয়া জানানো হলো এমন প্রশ্নের জবাবে জেলা বিএনপির সভাপতি কলিম উদ্দিন আহমদ মিলন বলেন, বন্যার শুরু থেকে দুর্গত মানুষদের ত্রাণ সহায়তা ও রান্না করা খাবার বিতরণ করছেন তারা। এজন্য প্রতিক্রিয়া জানাতে সময় লেগেছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা কমিটির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট মল্লিক মঈন উদ্দিন সোহেল, নাদীর আহমদ, অ্যাডভোকেট শেরেনুর আলী, সেলিম আহমদ, আবুল কালাম, জেলা যুবদলের সভাপতি আবুল মুনসুর শওকত, দলীয় নেতা অ্যাডভোকেট জিয়াউর রহিম শাহীন, জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মামনুর রশিদ কয়েস, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মুনাজ্জির হোসেন, জেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।