ঢাকার মতিঝিলের আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বর্ডির কার্যক্রম ৬ মাসের জন্য স্থগিত করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড-মাউশি।

মাউশির কলেজ পরিদর্শক অধ্যাপক আবু তালেব মো. মোয়াজ্জেম হোসেন স্বাক্ষরিত এক নির্দেশনায় এ নির্দেশনা আসে।

এতে বলা হয়, ২০২১ সালে গভর্নিং বডির কার্যক্রম নিয়ে হাইকোর্টে রিট পিটিশনের পর আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক মতিঝিলের আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের গভর্নিং বর্ডির কার্যক্রম চলতি বছর ১ জানুয়ারি থেকে আগামী ছয় মাসের জন্য স্থগিত করা হল।

এর আগে গত বছর ডিসেম্বরে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের বর্তমান গভর্নিং বডিতে পর পর চার বার সভাপতি পদে আবু হেনা মোর্শেদ জামান থাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে রিট দায়ের করা হয়। রিটে সভাপতি পদে আবু হেনা মোর্শেদ জামান থাকাকে কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারির আর্জি জানানো হয়।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরিদর্শক, আইডিয়াল স্কুল ও কলেজ গভর্নিং বডির সভাপতি আবু হেনা মোর্শেদ জামান এবং আইডিয়াল স্কুল ও কলেজের অধ্যক্ষকে বিবাদী করা হয়ে। ১৫ ডিসেম্বর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ এই রিট করেন।

আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ জানিয়েছিলেন, মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের বর্তমান গভর্নিং বডিতে পরপর চার বার সভাপতি পদে আবু হেনা মোর্শেদ জামান থাকার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। ২০১৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্টের দেওয়া এক রায়ে বলা হয়েছে, কোন ব্যক্তি একই প্রতিষ্ঠানে পরপর দুই মেয়াদের (টু টার্ম) বেশি সভাপতি পদে থাকতে পারবেন না। কিন্তু আবু হেনা মোর্শেদ জামান ২০১৭ সাল থেকে পর পর চার বার সভাপতি হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। যা সর্বোচ্চ আদালতের রায়ের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এ কারণে রিট দায়ের করা হয়েছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানের আদেশক্রমে গত ৯ নভেম্বর কলেজ পরিদর্শক শাখা হতে আবু হেনা মোর্শেদ জামানকে মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের সভাপতি হিসেবে অনুমোদন দেওয়া হয়। এরপর ওই আদেশ চ্যালেঞ্জ করে রিট দায়ের করা হয়েছে।

এর আগে এ বিষয়ে ওই প্রতিষ্ঠানের সভাপতি ও অধ্যক্ষকে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়। ওই নোটিশের কোন জবাব না পেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়।