দুর্নীতি মামলায় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সাবেক জেলার মো. সোহেল রানা বিশ্বাসের জামিন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। সোমবার চট্টগ্রাম মহানগর দায়রা জজ ড. বেগম জেবুনেচ্ছার আদালত শুনানি শেষে এ আদেশ দেন। তিনি এখন চট্টগ্রাম কারাগারে বন্দি রয়েছেন।

দুদক পিপি অ্যাডভোকেট মাহমুদ হক মাহমুদ বলেন, দুদকের দায়ের করা মামলার আসামি সোহেল রানা বিশ্বাস জামিন আবেদন করেছিলেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করেন।
২০২১ সালের ২৯ নভেম্বর দুদক চট্টগ্রাম সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ (সজেকা-১) এ মামলাটি দায়ের করেন কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মো. আবু সাঈদ। মামলায় ঘুষ দুর্নীতির মাধ্যমে দুই কোটি ৩৩ লক্ষ ৩৩ হাজার ২৩৫ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন এবং দুদকে দাখিলকৃত সম্পদ বিবরণীতে ৪০ লক্ষ ২৭ হাজার ২৩৩ টাকা মুল্যের সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে দুদক আইনের ২৬ (২) ও ২৭ (১) ধারা এবং মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইনের ৪ (২) ও ৪ (৩) ধারায় অভিযোগ করা হয়। গত ৯ মে দুদকের মামলার তদন্ত কর্মকর্তার আবেদনের উপর শুনানি শেষে সাবেক জেলার সোহেলকে মামলায় গ্রেপ্তার দেখাতে নির্দেশ দেয় আদালত।

সোহেল রানা ময়মনসিংহ জেলার ধোবাউড়া থানার পোড়া কান্দুলিয়া গ্রামের মো. জিন্নাত আলী বিশ্বাসের ছেলে। তিনি রেলওয়ে পুলিশের হাতে আটকের সময় চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে জেলার হিসেবে কর্মরত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ২৭ অক্টোবর ভৈরব রেলওয়ে স্টেশনে ময়মনসিংহগামী বিজয় এপপ্রেসের একটি বগি থেকে জেলার সোহেল রানাকে একটি ব্যাগ থেকে নগদ ৪৪ লাখ ৪৩ হাজার টাকা, আড়াই কোটি টাকার তিনটি এফডিআরের কাগজ, ১ কোটি ৩০ লাখ টাকার তিনটি ব্যাংক চেক, পাঁচটি চেক বই ও ১২ বোতল ফেনসিডিল পাওয়া যায়। পরে তার বিরুদ্ধে ভৈরব রেলওয়ে থানায় মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে দুটি মামলা করে রেলওয়ে পুলিশ।