ভারতের রাজধানী দিল্লিতে তীব্র গরমের পাশাপাশি বাড়ছে আর্দ্রতা। তাপমাত্রার পারদ ঘুরছে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশপাশে। এতে ঘর থেকে বের হওয়ার বিষয়ে দিল্লি প্রশাসন রাজধানী জুড়ে জারি করেছে কমলা সতর্কতা।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে জানা গেছে, দিল্লির ‘হিট ইনডেক্স’ মঙ্গলবারই ৫৩ ডিগ্রি ছুঁয়ে ফেলেছে। সর্বোচ্চ তাপমাত্রার সঙ্গে সার্বিক আর্দ্রতার আনুপাতিক হিসেব করেই হিট ইনডেক্সের অঙ্ক কষা হয়। তাপমাত্রার পারদ যা-ই হোক, বাস্তবে কতটা গরম অনুভূত হচ্ছে তার হিসাব কষাই হিট ইনডেক্সের কাজ। 

ভারতীয় আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, দিল্লিতে গরমের পাশাপাশি আর্দ্রতাও বেশি হওয়ায় অস্বস্তিকর আবহাওয়া বাড়ছে। দিল্লির সর্বোচ্চ তাপমাত্রা মঙ্গলবারও ছিল ৪৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর পাশাপাশি দিল্লির ‘ওয়েট বাল্ব’ তাপমাত্রা রেকর্ড উচ্চতায় পৌঁছেছে। মঙ্গলবার ৩৩.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিল রাজধানীর দিল্লির তাপমাত্রা। 

সর্বোচ্চ তাপমাত্রা, আর্দ্রতা, বাতাসের গতিবেগ এবং সূর্যের বিকিরণের আনুপাতিক হিসেবকে বলা হয় ওয়েট বাল্ব। সূর্যের আলোয় হিসাব করা হয় এই তাপমাত্রার। যা ৩৫ ডিগ্রি ছুঁলে ধরে নিতে হবে, তা আর মানবদেহের সহনযোগ্য নয়। বাড়ির বাইরে বের হওয়া বন্ধ করে দেওয়াই নিয়ম এই তাপমাত্রায়। দিল্লি প্রশাসন তাই রাজধানী জুড়ে কমলা সতর্কতা জারি করেছে।

দিল্লিতে এই তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণ হিসেবে আর্দ্রতা বহনকারী পূবালী হাওয়াকে দায়ী করেছেন আবহাওয়া বিশারদরা। তবে আগামী দু’দিন এই পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ার কোনো নেই। 

দেশটির মৌসুম ভবন জানিয়েছে, ৩০ জুন থেকে ১ জুলাইয়ের মধ্যে বর্ষার রেশ মিলবে দিল্লিতে। তারপর ফিরতে পারে স্বস্তি।