খুলনায় সন্ত্রাসীদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত কলেজ ছাত্র সৈয়দ তাহমিদুন্নবী (২২) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে। 

বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। 

এর আগে দুপুর ২টার দিকে দৌলতপুর এলাকায় কলেজছাত্র তাহমিদুন্নবীকে কুপিয়ে জখম করা হয়।

দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নজরুল ইসলাম জানান, নিহত তাহমিদুন্নবী নগরীর রায়েরমহল কলেজের শিক্ষার্থী। তিনি দৌলতপুর থানার নতুন রাস্তা সাহাপাড়া মোড় এলাকার সৈয়দ তৌহিদুন্নবীর ছেলে।

নিহতের পরিবার ও প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ২টার দিকে নতুন রাস্তা সাহাপাড়া মোড় এলাকার কাঠ মিস্ত্রি পলাশ তাকে বাসা থেকে ডেকে নেয়। এরপর সেখানে পূর্ব থেকে উপস্থিত থাকা ৪/৫ জন সন্ত্রাসী তাহমিদুন্নবীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা ঘটনাস্থল থেকে চলে যায়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাতে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় পায়েল নামে একজনকে আটক করেছে পুলিশ।