ঈদুল আজহা উপলক্ষে শুক্রবার আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার প্রথম সাড়ে পাঁচ ঘণ্টায় সারাদেশে ট্রেনের ৫৭ হাজার ৬৪৩টি টিকিটি বিক্রি হয়েছে। 

এদিন সকাল ৮টা থেকে দুপুর দেড়টা পর্যন্ত এসব টিকিট বিক্রি হয়। ট্রেনের টিকিট বিক্রির অপারেটর সহজ লিমিটেড এ তথ্য জানায়।

জানা যায়, বিভিন্ন স্টেশনের কাউন্টার থেকে ৩০ হাজার ৯২৭টি টিকিট বিক্রি হয়েছে। আর অনলাইনে ওয়েবসাইট ও অ্যাপে বিক্রি হয়েছে ২৬ হাজার ৭১৬টি টিকিট।

শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে ঈদযাত্রার ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। আজ দেওয়া হচ্ছে ৫ জুলাইয়ের ট্রেনের টিকিট। ওই দিন ঢাকা থেকে ৩৪টি আন্তঃনগর ট্রেনে আসন সংখ্যাল মাত্র ২৬ হাজার ৬১৩টি। এর অর্ধেক ঢাকার কমলাপুর স্টেশনসহ ছয়টি স্থান থেকে বিক্রি করা হচ্ছে। বাকি অর্ধেক বিক্রি করা হচ্ছে ওয়েব ও অ্যা পে। 

ঢাকার টিকিটের কতটি বিক্রি হয়েছে তা জানাতে পারেননি সহজ মুখপাত্র ফারহাদ আহমেদ। তার ভাষ্য, সকাল ৮টায় টিকিট বিক্রির শুরুর প্রথম মিনিটে চার লাখ হিট হয়। টিকিটের তুলনায় যাযত্রীর সংখ্যাট ৩০ থেকে ৫০ গুণ। অনলাইন ও কাউন্টারের অধিকাংশ যাত্রী টিকিট পাচ্ছেন না। এসি ও কেবিনের টিকিট সকালে বিক্রি শুরুর কয়েক মিনিটের মধ্যে শেষ হয়েছে। 

রেল সূত্র সমকালকে জানিয়েছে, তদবিরে যাবে এসব টিকিট। এসি ও কেবিনের বগি ঈদের আগাম টিকিটের সার্ভারে যুক্ত করা হয়নি। ক্ষমতাধরদের আসা তদবির একসঙ্গে করার পর, তাদের দেওয়া হবে এসব বগির টিকিট। যা বাড়তি থাকবে, তা পাবেন সাধারণ যাত্রীরা। 

এর আগে সহজ জানায়, সকাল ১১টা পর্যন্ত সারাদেশে তিন ঘণ্টায় ট্রেনের ৪৪ হাজার ৯০৯টি টিকিট বিক্রি হয়েছিল। বিভিন্ন স্টেশনের কাউন্টার থেকে বিক্রি হয়েছিল ২৩ হাজার ১৮টি টিকিট। আর অনলাইনে ওয়েবসাইট ও অ্যা পে বিক্রি হয়েছিল ২১ হাজার ৮৯১ টিকিট।