বিসিবি এত বছর স্কুল ক্রিকেট আয়োজন করেছে নিয়মিতই। টুর্নামেন্ট হয়ে গেলেই দায়িত্ব শেষ মনে করতেন সংশ্নিষ্টরা। এবার সেই চিন্তাধারা থেকে বেরিয়ে এসেছে বিসিবি। স্কুল টুর্নামেন্টে খেলা কিশোর ক্রিকেটারদের নিয়ে প্রথমবারের মতো গড়া হচ্ছে জাতীয় স্কুল দল। বাছাইকৃত সেরা খেলোয়াড়দের দেওয়া হচ্ছে স্কুলভিত্তিক বৃত্তি।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে বৃহস্পতিবার থেকে ট্রায়াল শুরু চলছে দল নির্বাচনের। বিসিবি জুনিয়র নির্বাচক প্যানেল উদীয়মান ক্রিকেটারদের টেস্ট নিচ্ছেন। খেলোয়াড় বাছাই হয়ে গেলে দুই সপ্তাহের প্রশিক্ষণ দেবে বোর্ড। এরপর গড়া হবে চূড়ান্ত দল। যাদের শ্রীলঙ্কা বা ভারতে ম্যাচ খেলার সুযোগ করে দেওয়া হবে। এর চেয়েও ভালো খবর বিসিবির পাইপলাইনে যোগ করা হচ্ছে স্কুল ক্রিকেটারদের।

এ বছর স্কুল টুর্নামেন্টে প্রায় সাত হাজার খেলোয়াড় অংশগ্রহণ করেছে। সেখান থেকে সেরা ১৬২ জনকে ট্রায়ালে ডাকা হয়েছে। এখান থেকে ৩০ জনকে বাছাই করা হবে ক্যাম্পের জন্য। বিসিবি গেম ডেভেলপমেন্ট বিভাগের প্রধান নির্বাচক সাজ্জাদ আহমেদ শিপন জানান, স্কিল ট্রেনিং ক্যাম্প শেষে ১৫ জনকে নিয়ে হবে স্কুল দল। তিনি বলেন, 'এই ছেলেগুলোর মোটামুটি স্কিল আছে। এবার থেকে যেটা হলো সেরা ছেলেগুলোকে আমাদের পাইপলাইনে সংযোজন করছি। কেউ হয়তো অনূর্ধ্ব-১৭ দলে যাবে। কেউ সুযোগ পাবে অনূর্ধ্ব-১৯ দলে। সবচেয়ে সুন্দর দিক হলো, ভালো খেলার পুরস্কার হিসেবে স্কলারশিপ পাবে তারা।'

চারটি জোনে ভাগ করে ট্রায়াল নেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার ঢাকা মেট্রোর খেলোয়াড়দের টেস্ট হয়ে গেছে। গতকাল রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ক্রিকেটারদের দেখেছেন নির্বাচকরা। আজ দক্ষিণাঞ্চল তথা খুলনা-বরিশালের খেলোয়াড়রা নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ পাচ্ছে। কাল চট্টগ্রাম-সিলেটের সঙ্গে ঢাকা উত্তর-দক্ষিণের ক্রিকেটারদের ডাকা হবে।