সাভারের আশুলিয়ায় শিক্ষক উৎপল কুমার সরকার হত্যার ঘটনায় আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন মূল অভিযুক্ত জিতুর বাবা মো. উজ্জ্বল।

আজ মঙ্গলবার আদালতকে তিনি বলেন, তাঁর ছেলে জিতুই শিক্ষক উৎপলকে পিটিয়ে হত্যা করেছে। ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিচার বিভাগীয় হাকিম কাজী আশরাফুজ্জামানের খাস কামরায় তিনি এ জবানবন্দি দেন।

পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়া থানার এসআই ইমদাদুল হক আসামি উজ্জ্বলকে আদালতে হাজির করেন। একই সঙ্গে তাঁর জবানবন্দি লিপিবদ্ধ করার আবেদন জানান। প্রায় তিন ঘণ্টায় আদালত আসামি উজ্জ্বলের স্বীকারোক্তি লিপিবদ্ধ করেন। এ সময় তিনি বলেন, 'আমার ছেলেই শিক্ষক উৎপলকে হত্যা করেছে।' পরে আদালতের নির্দেশে তাঁকে আবার কারাগারে পাঠানো হয়।

গত ২৫ জুন আশুলিয়ার হাজি ইউনুস আলী স্কুল অ্যান্ড কলেজের মাঠে শিক্ষকের ওপর অতর্কিত হামলা চালায় ওই প্রতিষ্ঠানের দশম শ্রেণির ছাত্র জিতু। ক্রিকেটের স্টাম্প দিয়ে পিটিয়ে সে শিক্ষক উৎপলকে গুরুতর আহত করে। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৭ জুন উৎপল মারা যান।

ঘটনার পর আশুলিয়া থানায় ভাই অসীম কুমার বাদী হয়ে জিতুসহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে মামলা করেন। মামলার প্রধান আসামি জিতু রিমান্ডে আছে। আগামী বৃহস্পতিবার তাঁকে আদালতে হাজির করা হবে।