আগামী রোববার সারাদেশে উদযাপিত হতে যাচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে অনেকেই যাচ্ছেন বাড়ি। আজ বৃহস্পতিবার সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে অফিস শেষ করে ছুটবেন আরও অনেকে।

কিন্তু ঈদের দিনটি কাটবে কেমন? ভ্যাপসা গরম সহ্য করতে হবে, নাকি বৃষ্টির কারণে ঘরবন্দি থাকতে হবে? কারণ, কয়েক দিন ধরে প্রকৃতিতে চলছে রোদ-বৃষ্টির লুকোচুরি। কখনও প্রচণ্ড গরম, খানিক পর আবার ঝমঝমিয়ে বৃষ্টি।

বৃষ্টি শেষ হতে না হতেই আবার গরমে অস্থির চারপাশ। বুধবারও দুপুরের পর থেকে থেমে থেমে ঝরেছে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি। আবাহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, ঈদের দিনও থাকবে এমন বৃষ্টিমুখর। তবে ভারী বৃষ্টি হবে না কোথাও।

অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক বলেন, ঈদের দিন দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টির সম্ভাবনা আছে। তবে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা কম। রাজধানী ঢাকায়ও বৃষ্টি হতে পারে, তবে তা সামান্য। ঈদের দিন দেশের দক্ষিণাঞ্চলে অপেক্ষাকৃত বেশি বৃষ্টি হতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের উপপরিচালক ছানাউল হক মণ্ডল বলেন, এখন যেহেতু বর্ষা মৌসুম, সেহেতু সারাদেশেই কমবেশি বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ খুবই কম থাকবে। দু-একটি জায়গায় হয়তো হালকা থেকে মাঝারি ধরনের ভারী বৃষ্টি হতে পারে। হালকা বৃষ্টির প্রবণতা ঈদের পরদিনও থাকতে পারে।